খেলা 

বিশ বছর পর বিশ্ব ফুটবলে সেরার শিরোপা দখল ফ্রান্সের,ভাল খেলেও হেরে গেল ক্রোয়েশিয়া

শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিবেদক : বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল ম্যাচ টানটান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে শেষ হল। রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল ম্রাচ নানা কারণে ইতিহাসে ঠাঁই পেয়ে যাবে। বিশ্বকাপ ফুটবলে ফাইনাল ম্যাচে ভাল খেলেও হার স্বীকার করতে হল ক্রোয়েশিয়াকে। অন্যদিকে শুধু মাত্র তারুন্যকে সম্বল করে ফ্রান্স বাজিমাত করল।

বিশ্বকাপ ফাইনাল। টেনশন ও আবেগ চেপে অপেক্ষা করছিল গোটা দুনিয়া। আর শুরু থেকেই টানটান ম্যাচ লুজ়নিকি স্টেডিয়ামে। প্রথমার্ধ শেষে তিন গোল। ৪-২ ব্যবধানে এগিয়ে যায় ফ্রান্স । আজ শুরুতে নিজেদের জালে বল ঢুকিয়ে ফ্রান্সের কাজ সহজ করে দেয় ক্রোয়েশিয়া। ১৮ মিনিটে ফ্রি-কিক পায় ফ্রান্স। অ্য়ান্তেনিও গ্রিয়েজ়ম্যানের শট ম্যান্ডজ়ুকিচের মাথায় লেগে ঢুকে যায় জালে। এই আত্মঘাতী গোলের জন্য আজীবন আফশোস করতে হবে ক্রোট ফুটবলারকে। তবে ফাইনালের চাপ  কাটিয়ে ২৮ মিনিটে সমতা ফেরায় ক্রোয়েশিয়া। ডান পায়ে চোট নিয়ে বাঁ-পায়ে গোল করেন ক্রোট ফুটবলার পেরিসিচ। কিন্তু ভাগ্য যেন আজ ক্রোয়েশিয়ার পক্ষে নেই। ১০ মিনিটের মাথায় ফের ভুল। স্কোরার পেরিসিচ বল রিসিভ করতে গিয়ে হাতে লাগে বল। রেফারি কোনও সিদ্ধান্ত দেননি। কিন্তু ভিডিও  অ্যাসিসটেন্ট রেফারির (VAR) সিদ্ধান্তে পেনাল্টি পায় ফ্রান্স। নিখুঁত পেনাল্টি থেকে গোল করলেন গ্রিয়েজ়ম্যান।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ফের গোল ফ্রান্সের। ৫৯ মিনিটে গ্রিয়েজ়ম্যানের পাস থেকে শট নেন পোগবা। কিন্তু সেই শট আটকে যায়। রিবাউন্ড শটে বিশ্বকাপ ফাইনালে গোল করলেন পোগবা। ফ্রান্সের হয়ে চতুর্থ গোলটি করলেন মবাপ্পে। ২৫ গজ দূর থেকে শট নিয়ে গোল করেন তিনি। ৭১ মিনিটে ফ্রান্স গোলকিপার হুগো লরিসের ভুলে গোল পেল ক্রোয়েশিয়া। গোল পান ক্রোট ফুটবলার ম্যান্ডজুকিচ।

বল পজিশনে ক্রোয়েশিয়ার চেয়ে পিছিয়ে থাকলেও শেষ পর্যন্ত ৪-২ গোলে ফাইনাল জিতে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স৷ ৯০ মিনিট ধরে দুরন্ত লড়াই করেও ট্র্যাজিক নায়ক হয়ে থেকে গেল ক্রোটরা৷ ফাইনালে খলনায়ক বনে গেলেন সেমিফাইনালের নায়ক মানজুকিচ৷ তাঁর আত্মঘাতী গোল নির্ণায়ক হয়ে দাঁড়াল৷ ফাইনাল শেষে রাশিয়ার মাটিতে লুজনিকিতে উড়ল ফ্রান্সের পতাকা৷ চোখের কোণে জল নিয়ে বাকরুদ্ধ মদ্রিচ-মানজুকিচরা৷


শেয়ার করুন
  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment