জেলা 

চোপড়া কান্ড : প্রেমের টানেই কিশোরী এবং প্রেমিক দুজনই এক সঙ্গে বিষ খেয়েছিলেন দাবি পুলিশের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : উত্তর দিনাজপুরের চোপড়ায় সম্প্রতি মাধ্যমিক পাশ এক কিশোরীর মৃত্যু নিয়ে রাজ্য জুড়ে যে তোলপাড় করেছিল বিজেপি তা আসলে একটি প্রণয় ঘটিত বিষয় । মেয়েটি হিন্দু পরিবারের ছেলেটি মুসলিম । তাঁদের এই সর্ম্পককে মেনে নিতে পারেনি মেয়েটির পরিবার । তাই দুজনেই আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছিল । একই দিনে দুজন মারা গিয়েছিল বলে পুলিশের দাবি ।

বুধবার নিহত যুবকের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসে। তাতে দেখা যায় কিশোরীকে খুনে অভিযুক্ত যুবকের মৃত্যুও হয়েছে বিষক্রিয়ায়। এর আগে কিশোরীর মৃত্যুও বিষক্রিয়ায় হয়েছে বলে জানা গিয়েছিল ময়নাতদন্তের রিপোর্টে। শুধু তাই নয়, দুজনের দেহে একই বিষের উপস্থিতি মিলেছে বলে জানিয়েছেন ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত এপ্রিল থেকে কিশোরীর সঙ্গে যোগাযোগ ছিল ওই যুবকের। টের পেয়ে মাঝে মেয়েকে দিদির বাড়িতে পাঠিয়ে দেন মা।ফিরে এসে ফের ২ জনের মধ্যে যোগাযোগ হয়। কিশোরীর মোবাইল ফোন ঘেঁটে জানা গিয়েছে, ঘটনার রাতে ১১টা নাগাদ প্রেমিককে মেসেজ করে কিশোরী। তাতে জানায়, তার সঙ্গে পালিয়ে যেতে চায় সে। নইলে একসঙ্গে ২ জনে বিষ খাবে।

প্রেমিকার মেসেজ পেয়ে গভীর রাতে কিশোরীর বাড়িতে পৌঁছয় যুবক ফিরোজ আলি। ততক্ষণে ঘুমিয়ে পড়েছেন কিশোরীর বাড়ির লোকেরা। সেই সুযোগে প্রেমিকের হাত ধরে বাড়ি ছাড়ে কিশোরী। বাড়ি থেকে কিছু দূরে যেখানে কিশোরীর দেহ মিলেছে, সেখানে বসে ২ জনে চকোলেট খায়। এর পর একসঙ্গে বিষ খায় ২ জনে।

পুলিশের দাবি, পাশাপাশি মৃত্যু হয় কিশোরী ও তাঁর প্রেমিক ফিরোজ আলির। সকালে বাড়ির কাছে মেয়ে ও তার প্রেমিককে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে কিশোরীকে হাসপাতালে নিয়ে যায় পরিবার। সেখানে তাঁর মৃত্যু হয়। আর যুবকের দেহ নয়ানজুলিতে লুকিয়ে ফেলে তারা। পরদিন নয়ানজুলি থেকে উদ্ধার হয় ফিরোজ আলির দেহ। এরই মধ্যে একে ধর্ষণ ও খুনের ঘটনা বলে দাবি করে আন্দোলনে নামে বিজেপি।

ময়না তদন্তের রিপোর্টে কোথাও মেয়েটি ধর্ষণ করা হয়েছে বলে উল্লেখ্য নেই অথচ বিজেপি এটা নিয়ে রাজনীতি করে গেল । আর এক ধাপ এগিয়ে রাজ্যপালও মন্তব্য করে ফেললেন রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুব খারাপ ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment