কলকাতা 

উপসর্গহীন করোনা আক্রান্তদের চিহ্নিত করতে কলকাতা পুরসভা এলাকায় বাড়ি বাড়ি যাবে স্বাস্থ্যকর্মীরা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : শহর কলকাতায় করোনার সংক্রমণের পুরসভা ও সরকার বেশ খানিকটা চাপে পড়েছে । এই অবস্থায় সবচেয়ে মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়ে উপসর্গহীন করোনা আক্রান্তরা । এদের বাইরে থেকে চেনা যায় না । অসুস্থ বলে বোঝাও যায়নি । অথচ এরা করোনা ভাইরাস নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে , এর ফলে অন্যরা আক্রান্ত হচ্ছে । এভাবে নাকি কলকাতায় ছড়িয়ে পড়ছে করোনা । তাই  শহরের উপসর্গহীন সংক্রমিতদের খুঁজে বের করতে তৎপর কলকাতা পুরসভা। এবার থেকে পালস অক্সিমিটার নিয়ে বাড়ি বাড়ি ঘুরে পরীক্ষা করবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। এটা  জানান রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, আগে শুধুমাত্র থার্মাল গান নিয়ে পরীক্ষা করতেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। তবে এবার তাঁদের সঙ্গে থাকবে পালস অক্সিমিটার। তার ফলে বোঝা যাবে কোনও ব্যক্তির শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা ঠিক কীরকম রয়েছে। উল্লেখ্য, করোনা আক্রান্তদের শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যায়। ওই পালস অক্সিমিটারের মাধ্যমে তা ধরে ফেলা সম্ভব হলে, খুব সহজেই পরীক্ষা করিয়ে নেওয়া যাবে। তার ফলে কোনও ব্যক্তি উপসর্গহীন করোনা আক্রান্ত কিনা, তা বোঝা সম্ভব হবে। এছাড়াও স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে শহরের গরিব মানুষদের বিভিন্ন রোগের ওষুধ এবং প্রতিষেধকও দেওয়া হবে।

কলকাতায় সংক্রমণ বাড়ছে যথেষ্ট। যদিও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  দিনকয়েক আগে স্পষ্ট জানিয়েছেন, শহরে করোনা আক্রান্তের গ্রাফ উর্ধ্বমুখী হওয়ার কারণ। তবে তা সত্ত্বেও শহরের আবাসনগুলি চিন্তা বাড়াচ্ছে প্রশাসনিক কর্তাব্যক্তিদের।

কারণ, শনিবারই স্বরাষ্ট্র সচিব জানিয়েছেন, বসতি এলাকার তুলনায় বর্তমানে আবাসনগুলিতেই বেশি বাড়ছে সংক্রমণ। বসতি এলাকায় ঢুকে পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে। তবে আবাসনে স্বাস্থ্যকর্মীদের ঢুকতে না দেওয়ার ফলে সংক্রমিতের সংখ্যা বাড়ছে বলেও অনুমান করা হচ্ছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment