দেশ 

কূটনৈতিক রক্ষাকবচকে কাজে লাগিয়ে প্রায় দুশো কেজি সোনা পাচার হয়েছে বলে অনুমান গোয়েন্দাদের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : কূটনৈতিক রক্ষাকবচকে কাজে লাগিয়ে বেশ কয়েক কেজি সোনা পাচার হয়েছে বলে গোয়েন্দা অনুমান । তদন্তকারীর অফিসারদের দাবি, বেশ কিছু দিন ধরে এই কূটনৈতিক চ্যানেলে সোনা পাচার হয়েছে। তাঁরা বলছেন, শুধুমাত্র ২৫ জুন থেকে ৩ জুলাইয়ের মধ্যেই তিনটি ব্যাগ এসেছে এই কূটনৈতিক চ্যানেলে। সেগুলি কখনও আমিরশাহির ডেপুটি কনসাল জেনারেলের নামে এসেছে, কখনও বা ওই অফিসের কোনও আধিকারিকের নামে। ফলে ওই ব্যাগগুলির কূটনৈতিক রক্ষাকবচ ছিল। সেই কারণেই ৩০ কেজি সোনা-সহ ধরা পড়া শেষ ব্যাগটি খোলার আগে বিদেশমন্ত্রকের অনুমতিও নেওয়া হয়েছিল। যে সব আধিকারিকের নামে ওই ব্যাগগুলি এসেছিল, তাঁদেরও জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছেন তদন্তাকীর অফিসাররা। খোদ কনসাল জেনারেলকেও একাধিক বার ডাকা হয়েছে তদন্তের জন্য। অন্য দিকে ধৃত দুই অভিযুক্ত সরিত ও স্বপ্না সুরেশকে নিয়ে রবিবার একাধিক জায়গায় তল্লাশি চালিয়েছেন একটি তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা।
সংযুক্ত আরব আমিরশাহির দূতাবাসের মাধ্যমে সম্প্রতি ৩০ কেজি সোনা পাচারের ঘটনা সামনে আসতেই তোলপাড় শুরু হয়েছে কেরলের রাজ্য রাজনীতিতে। পাচারের ঘটনায় নাম উঠে আসে মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের দফতরের এক আধিকারিকের। সরিত নামে ওই আধিকারিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এম শিবশঙ্কর নামে মুখ্যমন্ত্রীর প্রাক্তন প্রধান সচিবকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি একটি সংস্থার এক প্রভাবশালী মহিলা কর্মী স্বপ্না সুরেশ গ্রেফতার হয়েছেন। তার পরেই তদন্তে নেমেছে কেন্দ্রীয় একাধিক তদন্তকারী সংস্থা। দু’জনই আপাতত পুলিশি হেফাজতে রয়েছেন।
একটি সর্বভারতীয় চ্যানেলে তদন্তের সঙ্গে যুক্ত এক আধিকারিক বলেছেন, ‘‘আমরা এটা স্থির করতে পেরেছি যে, অন্তত ১৮০ কেজি সোনা পাচার হয়েছে ওই কূটনৈতিক চ্যানেলে। আমরা সেগুলি উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছি। তবে পাচার হওয়া সোনার মোট পরিমাণ তারও বেশি বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে।’’ তাঁদের দাবি, এই কূটনৈতিক চ্যানেল দিয়ে ১২ থেকে ১৩ বার সোনা পাচার হয়েছে।
কিন্তু সেই সব পাচার হওয়া সোনা কোথায় গেল, সেই বিষয়ে তদন্ত চালাচ্ছেন গোয়েন্দারা। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে চলছে চিরুনি তল্লাশি। রবিবারও ধৃত এই দুই অভিযুক্তকে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালিয়েছেন গোয়েন্দারা। যদিও এখনও পর্যন্ত ৩০ কেজির বাইরে আর কোনও সোনা উদ্ধার হয়নি বলেই তদন্তকারী আধিকারিকদের সূত্রে খবর।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment