কলকাতা 

কলেজ ভর্তিতে তোলাবাজ ছাত্র নেতাদের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে মুখ্যমন্ত্রীকেই

শেয়ার করুন
  • 18
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিবেদক : বহুল প্রচারিত এক দৈনিকে আজ খবর বেরিয়েছে কোন বিষয়ে নিশ্চিত ভর্তি হতে গেলে কত টাকা লাগবে। তা সত্ত্বে মুখ্যমন্ত্রী কিংবা তার দল তোলাবাজীর কথা মানতে চাইছিলেন না। যদিও নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে দলের কোর কমিটির বৈঠকে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কলেজ ভর্তি নিয়ে তোলাবাজীর অভিযোগ স্বীকার করে নিয়ে বলেছিলেন ছাত্র রাজনীতি তোলাবাজীর জন্য নয়। কোনরূপ তোলাবাজীকে বরদাস্ত করা হবে না । কিন্ত মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রীর এই হুশিয়ারি সত্ত্বে কয়েকদিন পরেই বিভিন্ন কলেজ থেকে তোলাবাজীর অভিযোগ আসতে থাকে । দলের নেতারা এই খবর জানেন না ঠিক নয়, বেশ কয়েক বছর আগে রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র নেতার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছিলেন তারই রাজনীতির সহযোদ্ধারা । কিন্ত তৃণমূল দল কোনও এক অজানা কারণে দলের ছাত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে যারা ওই কথিত ছাত্র নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিল তাদেরকে গ্রেফতার করতে শাসক দল পুলিশ নাকি নির্দেশ দিয়েছিল। শাসক দলের যে নেতার বিরুদ্ধে রবীন্দ্রভারতীর ওই ছাত্র নেতাকে প্রশয় দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল তিনি এখন দলে প্রমোশন পেয়ে সাংসদ হয়েছেন। এই ঘটনাটি ঘটেছিল আজ থেকে পাঁচ বছর আগে। সেই সময় যদি শাসক দল কড়া হাতে ওই সব কথিত ছাত্র নেতাদের শাসন করত তাহলে আর আজকে মুখ্যমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপ করতে হত না।

বাম আমলে ছাত্র রাজনীতি ছিল তারাও কলেজে ভর্তি নিয়ে দাদাগিরি করত । কিন্ত তাদের মধ্যে একটা দলীয় শৃঙ্খলা ছিল যেটা আজকের শাসক দল তৃণমূলের মধ্যে নেই বললেই চলে। তাই মুখ্যমন্ত্রীর হুশিয়ারিকে আর পাত্তাই দিচ্ছে না দলের ছাত্র নেতারা । পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া সত্তে পুলিশ সেই অর্থে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না । ফলে সংকট ঘনীভূত হচ্ছে। ভাল নম্বর থাকা সত্ত্বেও নামী কলেজে ভর্তি হতে পারছে না মেধাবীরা । এতে তরুণ সমাজে সরকার এবং তৃণমূল দল সম্পর্কে খারাপ ধারণা তৈরি হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর অনেক আগেই কড়া পদক্ষেপ নেওয়া উচিত ছিল, তবে দেরিতে হলেও তিনি যে পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছেন তা কিন্ত বন্ধ করা যাবে না । কোন কারণে একজন তোলাবাজ ছাত্র নেতা যদি অব্যাহতি পায় তাহলে অন্যরা তোলাবাজ হওয়ার আরও সাহস দেখাবে। তাই মুখ্যমন্ত্রী শুধু নির্দেশ দিয়েই দায় সারলে হবে না, তাঁর নির্দেশ যথাযথভাবে কার্যকর হচ্ছে কিনা তাও খতিয়ে দেখতে হবে । আমাদের সকলের মনে রাখা উচিত তোলাবাজী করার জন্য যারা রাজনীতি করেন তারা আসলে সকলেই ধান্দাবাজ ছাড়া আর কিছুই নয়। সুতরাং তাদের কোনভাবেই রেহাই দেওয়া যাবে না।


শেয়ার করুন
  • 18
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment