কলকাতা 

দুর্ঘটনা রুখতে বেসরকারি বাস ও মিনিবাস থেকে কমিশন প্রথা তোলার নির্দেশ সহ সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে ট্যাক্সির যাত্রী প্রত্যাখান এবং অটো চালক দৌরাত্ম রুখতে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার হুশিয়ারি পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর

শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধি : সাধারন মানুষকে উন্নত যাত্রী পরিষেবা দেওয়ার লক্ষ্যে কড়া অবস্থান নিলেন পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। ট্যাক্সি যাত্রী প্রত্যাখান করলে এবার পুলিশ কড়া ব্যবস্থা নেবে বলে পরিবহণ মন্ত্রী ট্যাক্সি মালিক সংগঠনকে হুশিয়ারি দিয়েছেন। তিনি অটো চালকদের উদ্দেশে বলেছেন,যখন তখন ভাড়া বৃদ্ধি করা যাবে না। উল্লেখ্য, কলকাতা শহরে ট্যাক্সির যাত্রী প্রত্যাখান ও অটো চালকদের দূর্ব্যবহারে সাধরণ মানুষ নাজেহাল পরিবহণমন্ত্রী যদি এই দৌরাত্ম ভাঙতে পারেন তাহলে শহর কলকাতার মানুষ তাঁকে দুহাত ভরে আর্শীবাবাদ করবে। এদিকে বাস দুর্ঘটনা রুখতে বেসরকারি বাস ও মিনিবাস থেকে কমিশন প্রথা তুলে দেওয়ার নির্দেশ দিলেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার পরিহণ দপ্তরের অফিসে রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বাস মালিক সংগঠনের কর্তাদের সঙ্গে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন। বৈঠকে তিনি জানিয়ে দেন, কোনওভাবে কমিশন প্রথা রাখা যাবে না। এর জন্য ওই কর্তাদের যাবতীয় পদক্ষেপ নিতে বলেন তিনি। কে আগে যাত্রী তুলবে তা নিয়ে পাল্লা দিতে গিয়েই একের পর এক বাস দুর্ঘটনা হচ্ছে। সেই দুর্ঘটনা রুখতেই এদিন পরিবহণ মন্ত্রী কমিশন প্রথা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন। এদিন এই বৈঠকে বাস মালিকদের সংগঠনের প্রতিনিধি ছাড়াও পরিবহন দপ্তরের আধিকারিক, ট্যাক্সি সংগঠনের প্রতিনিধি, পুলিস প্রশাসনের আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গিয়েছে।
জানা গিয়েছে, বর্তমানে বাসের চালক ও কন্ডাক্টররা বেতনের সঙ্গে দৈনিক কমিশন পান। সারা দিনে বাসে যা টিকিট বিক্রি হয় তার কিছু শতাংশ কমিশন হিসেবে পান চালক ও কন্ডাক্টর। যত বেশি টিকিট বিক্রি তত বেশি কমিশন। ফলে, কমিশনের অঙ্ক বাড়াতে বেশি যাত্রী তোলার লক্ষ্যে শুরু হয় বাসে বাসে রেষারেষি। এর জেরে ঘটে দুর্ঘটনা। পাশাপাশি বৈঠকে একটি কমিটি গঠন করা হয়। এবার থেকে ওই কমিটিই ঠিক করবে রুট পারমিট ও টাইম টেবল তৈরির কাজ।
এদিন বৈঠকে কমিশন প্রথা বন্ধের পাশাপাশি মন্ত্রী আরও বেশ কিছু নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। সেগুলি হল, বাসের ছাদে কোনওভাবে যাত্রীদের নেওয়া যাবে না। সকাল বা রাতে, কোনও সময়ই ওভারটেক বা ওভারস্পিডে বাস চালানো যাবে না। তবে সাধারণ মানুষের বেশি অভিযোগ ট্যাক্সির যাত্রী প্রত্যাখ্যান নিয়ে। এদিন মন্ত্রী ট্যাক্সি মালিক সংগঠনের কর্তাদের বলেন, রিফিউজাল কোনওমতে চলবে না। যাত্রীদের ট্যাক্সিতে নিতেই হবে। যাত্রী প্রত্যাখ্যান বন্ধ করতে হবে। নইলে পুলিসকে কড়া হওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। অটো ভাড়া যখন-তখন বেড়ে যাওয়ার ব্যাপারেও বার্তা দেন মন্ত্রী। বলেন, হঠাৎ হঠাৎ অটোর ভাড়া বাড়ানো চলবে না। আলোচনা সাপেক্ষে এই ভাড়া বৃদ্ধির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আলোচনা না করে ভাড়া বৃদ্ধিকে অনুমোদন করা যাবে না বলে মন্ত্রী স্পষ্ট জানিয়ে দেন। পাশাপাশি তাঁর এও নির্দেশ, অটো-ট্যাক্সি থেকে এলইডি আলো খুলে ফেলতে হবে, সাউন্ড সিস্টেম লাগানো চলবে না। যেগুলিতে রয়েছে, তা খুলে ফেলতে হবে।


শেয়ার করুন
  • 14
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment