জেলা 

সমুদ্রতটে পর্যটকদের সুরক্ষায় দিঘা বিচ সেফটি নামে অত্যাধুনিক অ্যাপ তৈরি করছে প্রশাসন

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দিঘা: সৈকত শহর দিঘা সমুদ্রতটে পর্যটকদের সুরক্ষার জন্য এবার অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্য নিচ্ছে প্রশাসন।আনছে নতুন একটি আপ। দিঘা বিচ সেফটি নামে এই আপের সাহায্য-এ পর্যটকদের লোকেশনের উপর নজর রাখবে নুলিয়া ও পুলিশ।ফলে সমুদ্রে স্নান করতে গিয়ে কোনও সমস্যায় পড়লে দ্রুত সাহায্য করতে পারবেন নিরাপত্তারক্ষীরা।সুত্রের খবর,সি-বিচ ও ২২ টি ঘাটে নজরদারি চালাবে পুলিশ।এই আপটি তৈরি করেছে টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিস।গুগুল প্লে-স্টোরে দিন দুয়েকের মধ্যে আপলোড হবে এই আপ।একই নির্দেশিকা জারি হয়েছে শঙ্করপুর,তাজপুর ওও মান্দারমনিতে।শুধুমাত্র নিউ দিঘা এবং উদয়পুর সৈকতে ভাটার সময় সমুদ্রস্নানে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে । সৈকত শহরে বেড়াতে আসা পর্যটকদের এই আপ ডাউনলোড করার অনুরোধ জানিয়েছে , স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ।’দিঘা বিচ সেফটি’নামের এই আপ ডেভেলপমেন্টের কাজ করেছে সংস্থার ‘নিনজা কোচ’দল । দলের সদস্যরা ইতিমধ্যে দিঘায় দুই থানায় পুলিশ কর্মীদের নিয়ে কর্মশালাও করেছেন। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(গ্রামীণ)ইন্দ্রজিৎ বসু বলেন,”শুধু মোবাইলে এই আপ ডাউনলোড করলেই হবে না।তার পাশাপাশি ফোনে লোকেশনও অন রাখতে হবে।তবেই কাজ করবে এই আপটি।যদি কেউ এই আপটি অন করে বন্ধু বা আত্মীয়ের হাতে দিয়ে সমুদ্রে নামে,তাহলে সে কোন বিপদে পড়লে পাড় থেকে এলার্ট পাঠাতে পারবেন তাঁর বন্ধু বা আত্মীয়রা।সেই এলার্ট সঙ্গে সঙ্গে পুলিশের কন্ট্রোল রুমে পৌঁছে যাবে।সেখান থেকে সমুদ্র তটে যে সব পুলিশকর্মী ও নুলিয়া নজরদারি চালাবে,খবর চলে যাবে তাদের কাছে। ফলে উদ্ধার কাজ আরও তাড়াতাড়ি করা সম্ভব হবে।”তিনি আরও বলেন,”দিঘা বিচ সেফটি আপে শুধু নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আপডেট দেওয়া হবে,তা নয়। প্রতিদিন আবহাওয়া সংক্রান্ত খবরাখবরও দেওয়া হবে আপের মাধ্যমে। যদি সুরক্ষা নিয়ে কোনও গোলমাল দেখা যায়,তাও আপের মাধ্যমে পর্যটকদের জানিয়ে দেওয়া হবে। পাশাপাশি রিয়েল টাইম আপডেটও জানানো হবে।সমুদ্রের কোথায় জলস্তর কতটা,তাও জানানো হবে এই আপের মাধ্যমে। এছাড়া নিরাপত্তা সংক্রান্ত নির্দেশ ও জরুরী নম্বরও দেওয়া থাকবে আপে। এছাড়া আগে দিঘার যে সব জায়গায় পর্যটকদের মৃত্যু ঘটেছে,সেই সব জায়গাগুলির নামও নথিভুক্ত করা হবে ।”প্রসঙ্গত,কিছুদিন আগে নির্দেশিকা জারি হয়েছিল,হাঁটু কিংবা কোমরের জলে নামলেই গ্রেফতার করা হবে পর্যটকদের। কোনও ব্যক্তি কোমরের জলে নামলে সমুদ্রপাড়ে কর্মরত নুলিয়ারা মাইকিং করে সতর্ক করবেন।মাইকিংয়ের পরও যদি পর্যটকদের বেপরোয়া মনোভব লক্ষ্য করা যায় সঙ্গে সঙ্গে তাদের গ্রেফতার করা হবে। সেইসঙ্গে মদ্যপান করে সমুদ্রে নামলেও পর্যটকদের গ্রেফতারের পাশাপাশি জরিমানা করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ।


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment