আন্তর্জাতিক 

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও করোনায় আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ব্রিটেনের প্রিন্স চার্লসের পর এবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন । আজ শুক্রবারই তাঁর সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছে। তবে তাঁর সংক্রমণ মৃদু বলে জানিয়েছেন বরিস নিজেই। আপাতত হোম আইসোলেশনে থাকলেও বাড়ি থেকেই ভিডিয়ো কনফারেন্সে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ-সহ সরকারের যাবতীয় কাজকর্ম করবেন বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। খোদ প্রধানমন্ত্রী আক্রান্ত হওয়ায় উদ্বেগ ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

শুক্রবার টুইটারে ভিডিয়ো বার্তায় বরিস জানিয়েছেন, ”গত ২৪ ঘণ্টায় জ্বর ও ক্রমাগত কাশির উপসর্গ দেখা দিয়েছিল। সেই কারণেই চিফ মেডিক্যাল অফিসারের পরামর্শমতো করোনাভাইরাসের টেস্ট করিয়েছিলাম। আজ সেই পরীক্ষার রিপোর্ট ‘কোভিড-১৯ পজিটিভ’ এসেছে।”

তিনি বলেছেন, ”যে বিশেষজ্ঞ দল করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় কাজ করছে, তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি।” গোটা দেশে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী-সহ যে সব কর্মীরা কাজ করছেন, তাঁদের ধন্যবাদ জানিয়ে বরিস বলেছেন, ”সবাই মিলে একসঙ্গে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করব।”

সমগ্র বিশ্বের সঙ্গে ব্রিটেনেও ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। শুক্রবার পর্যন্ত সেখানে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১১ হাজার ৬৫৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫৭৮ জনের। চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ১৩৫ জন। দেশ জুড়ে করোনার মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নানা কর্মকাণ্ড চলছে। তার মধ্যেই দেশের প্রধানমন্ত্রীর সংক্রমণ নিশ্চিত হওয়ায় উদ্বেগ ছড়াল ব্রিটেনের রাজনৈতিক মহলেও। গত কয়েক দিনে যাঁদের সংস্পর্শে এসেছেন বরিস, তাঁদের চিহ্নিত করার কাজ শুরু হয়েছে বলে জানানো হয়েছে ব্রিটেন প্রশাসনের তরফে। গত ১১ মার্চ সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছিল স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাদিন ডোরিসের। গতকাল প্রিন্স চার্লসের করোনাভাইরাস ধরা পড়ে ।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment