জেলা 

জাতির সংকটের দিনে মাস্কের জোগান দিতে দিন-রাত কাজ করে চলেছেন মনিরুল-আকিলরা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বুলবুল চৌধুরি : দেশজুড়ে করোনা মহামারীর আকার নিতে চলেছে । রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার নাগরিকদের নিরাপত্তা দিতে তৎপর । কিন্ত করোনাভাইরাস রোখার জন্য দুটি জিনিস আবশ্যিক । একটি হল স্যানিটাইজার আর অন্যটি হল মাস্ক। এন-৯৫ মাস্ক বাজারে অমিল । বেশি টাকা দিয়েও মিলছে না । কিন্ত চিকিৎসকরা বলছেন থ্রি-লোয়ার যুক্ত যেকোনো মাস্কই নিরাপদ । তা সত্ত্বে বাজারে অমিল মাস্ক । কালোবাজারিরা এই মাস্ক নিয়ে ব্যবসা করছে । কয়েক সপ্তাহ আগে যে মাস্কের দাম ছিল ১৫/২০ টাকা তা এখন বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৫০/৬০ টাকায় । তাও পাওয়া যাচ্ছে না ।

মাস্কের সংকটে বেকয়াদায় পড়েছে সাধারন মানুষ। চারদিকে লকডাউন চলছে । তবু চিকিৎসার প্রয়োজনে কিংবা বাজার করার জন্য বাইরে বেরোতে হচ্ছে কিন্ত মাস্ক নেই । বাইরে যেতে ভয় ভয় করছে । করোনা আতংক তাড়া করে ফিরছে । জাতির এই সংকটে দিনে এগিয়ে এসেছে দুই তরুণ । তারা মূলত কাপড়ের কাজে দক্ষ । কিন্ত সংকট যখন ঘনিয়ে আসে তখন প্রয়োজনে অন্য কাজও করতে হয় বইকি ।

দুই বন্ধু মিলে তৈরি করতে শুরু করল মাস্ক । তাদের তৈরি করা মাস্ক এন-৯৫কেও হার মানাবে । দিনরাত পরিশ্রম করে মনিরুল মল্লিক ও মুহাম্মদ আকিল আনসারি । তাদের মূল উদ্দেশ্য , করোনা ভাইরাসের থাবা থেকে বাগনান সহ  রাজ্যের মানুষকে মুক্ত রাখা । সেই কাজকে যথাযথভাবে করার জন্য দিনরাত পরিশ্রম করছেন মনিরুল-আকিলরা । কারণ জাতির এখন সংকট । এই সংকট মোকাবিলায় যার যেটুকু শক্তি আছে তা দিয়েই জাতির সেবা করতে হবে । সেবা করার মানসিকতা নিয়ে মনিরুলদের পথ চলা ।

এই প্রসঙ্গে মুহাম্মদ আকিল আনসারি সংবাদ-মাধ্যমকে বলেন ,আপাতত অন্যান্য কাজ বন্ধ রেখে দিন-রাত জেগে মাস্ক তৈরি করা হচ্ছে । এছাড়া কোনো উপায় নেই মানুষ আজ আতংকের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে । তাই মাস্কের জোগান ঠিক রাখা আমাদের প্রধান লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য । মনিরুল জানালেন , বাগনানের এই কারখানা থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে আমরা স্বল্প দামে মাস্ক সরবরাহ করছি । লাভের আশায় নয় , জাতির সংকটের দিনে সাধারন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে আমরা মাস্ক তৈরি করছি । বিভিন্ন ক্লাব –সংগঠন –সরকারি সংস্থা ও খুচরো বিক্রেতাদের অল্পদামে ১৪-২০ টাকা দরে আমরা মাস্ক বিক্রি করে থাকি । মাস্কের দাম নির্ধারণের ক্ষেত্রে আমরা উৎপাদন খরচ ও গুণগতমান লক্ষ্য রাখি । অন্য কাজ বাদ দিয়ে সমাজের স্বার্থে সাধারন মানুষের স্বার্থে মাস্কের অপ্রতুলতা দূর করতে মনিরুল-আকিলদের মত তরুণদের এই ভূমিকাকে স্যালুট করতেই হয় ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment