আন্তর্জাতিক 

স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে চিন , দুমাস পরে বুধবার থেকে লকডাউন উঠছে করোনার আতুরঘর হুবেই প্রদেশে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  আতংকের মধ্যে আশার কথা এই যে , চিনে করোনা ভাইরাস তার দাপট কমিয়ে দিয়েছে বা বলা যেতে পারে চিন থেকে করোনা ভাইরাস বিদায় নিয়েছে । তাই গত ২৩ জানুয়ারি থেকে লকডাউন থাকার চিনের হুবেই প্রদেশে আগামী কাল বুধবার থেকে লকডাউন তুলে নেওয়া হচ্ছে ।

উল্লেখ্য , এই প্রদেশ থেকেই করোনা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা, সেখানে আগামিকাল বুধবার থেকে উঠে যাচ্ছে লকডাউন। কাল থেকেই বাড়ির বাইরে বেরোতে পারবেন বাসিন্দারা। চালু হচ্ছে যানবাহনও। তবে করোনার আতুড়ঘর বলে চিহ্নিত উহান শহরকে এই নির্দেশিকার আওতার বাইরে রাখা হচ্ছে। সেখানে নিয়ন্ত্রণ উঠবে ৮ এপ্রিল থেকে।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষের দিকে এই হুবেই প্রদেশে প্রথম করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। তার পর সেখান থেকে গোটা হুবেই রাজ্য হয়ে চিনের প্রায় সর্বত্র এবং গোটা বিশ্বের ১৯০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে উহান-সহ হুবেই প্রদেশ জুড়ে লকডাউন জারি হয়েছিল ২৩ জানুয়ারি। তার প্রায় দু’মাস পরে সেই ঘরবন্দির নির্দেশ তুলে নেওয়া হচ্ছে বলে মঙ্গলবার হুবেই রাজ্য প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে।

চিন সরকারি ভাবে দাবি করেছে, করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। দেশীয় কোনও ব্যক্তি নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন, এমন কোনও রিপোর্ট নেই। অল্প সংখ্যক যে নতুন সংক্রমণ নিশ্চিত হচ্ছে, তাঁদের বিদেশে ভ্রমণ বা বিদেশিদের সংস্পর্শে আসার নজির রয়েছে। সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছে বেজিং।

 মঙ্গলবার লকডাউনের নির্দেশ তুলে হুবেই প্রশাসন জানিয়েছে, বাসিন্দারা ঘর থেকে বাইরে বেরিয়ে প্রয়োজনীয় কাজ করতে পারবেন। হুবেই প্রদেশের বাইরে যাতায়াত করতে পারবেন। একই ভাবে অন্য এলাকা থেকেও হুবেইয়ে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হবে। ট্রাফিক নিয়ম মেনে যানবাহন চলাচলেও আর কোনও বাধা থাকবে না। তবে বাইরে বেরোলে থাকতে হবে ‘গ্রিন কোড’। একটি অ্যাপের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত নানাবিধ প্রশ্নের জবাব দিয়ে এই ‘গ্রিন কোড’ পাওয়ার বন্দোবস্ত চালু করেছে চিনের প্রশাসন। সেই কোড সঙ্গে থাকলে যাতায়াতে আর কোনও বাধা থাকবে না। যদিও অ্যাপের মাধ্যমে সেই ‘গ্রিন কোড’ দেওয়া নিয়েও বিতর্ক রয়েছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment