কলকাতা 

করোনাভাইরাসের জেরে কলকাতাসহ দেশের ৭৫টি জেলাকে লকডাউন ঘোষনা করতে নির্দেশ দিল কেন্দ্র , আগামী কাল থেকে রাজ্যের সব পুর শহর লকডাউন হচ্ছে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : করোনাভাইরাসের জেরে আগামী কাল সোমবার থেকে কলকাতা সহ দেশের ৭৫ জেলায় লকডাউন ঘোষনা করার নির্দেশিকা দিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক । আজ সব রাজ্যের মুখ্যসচিব ও স্বাস্থ্যসচিবদের সঙ্গে বৈঠকের পর সিদ্ধান্ত হয় দেশের ৭৫টি জেলাকে লকডাউন করা হবে । ইতিমধ্যেই মুম্বই বা মহারাষ্ট্রে লকডাউন চলছে , আজ থেকে রাজস্থানে লকডাউন ঘোষনা করা হল ।

লকডাউন ঘোষণা হল রাজ্যের সবক’টি পুর শহরে। করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় সোমবার বিকেল চারটে থেকেই কার্যকরী হচ্ছে লকডাউন। চালু থাকবে ২৭ মার্চ রাত ১২টা পর্যন্ত। সে ক্ষেত্রে আপৎকালীন পরিষেবা বাদ দিয়ে বাকি সব কিছু বন্ধ হচ্ছে রাজ্যের পুর শহরগুলিতে।

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকেই এই লক ডাউনের প্রস্তাব পাঠানো হয়। নবান্ন সেই প্রস্তাব বিবেচনা করার পর এই প্রস্তাব মেনে নিয়েছে। রাজ্য সরকারের কোনও আপত্তি নেই বলেও নবান্ন সূত্রের খবর। তাই আজই লক ডাউনের সিদ্ধান্তে সিলমোহর পড়ল।  নবান্ন বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দিল ২৩ মার্চ বিকেল ৪টে থেকে ২৭ মার্চ পর্যন্ত রাজ্যের সব কটি পুর-শহর লকডাউন থাকবে।

সোমবার বিকেল থেকে যদি প্রশাসনের নির্দেশে রাজ্যের সব পুর শহরে বাধ্যতামূলক লকডাউন কার্যকরী হওয়ার ফলে  রাজ্যের রাজধানী কলকাতা, সবক’টি জেলা সদর, মহকুমা শহর, কোনও কোনও ক্ষেত্রে ব্লক স্তরের বা তার চেয়ে ছোট শহরও পুরোপুরি বিধিনিষেধের আওতায় চলে আসবে।

লকডাউনের সময়ে পুরোপুরি ঘরে থাকার জন্য  নিত্যপ্রয়োজনীয় এবং অত্যাবশ্যক যে সব সামগ্রী দরকার, তা সংগ্রহ করে নেওয়ার জন্য সোমবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত অবশ্য সময় পাবেন পুর শহরগুলির বাসিন্দারা। তবে লকডাউনের সময়ে জনতা যাতে বিপদে না পড়েন, তা নিশ্চিত করতে হাসপাতাল, চিকিৎসা পরিকাঠামো, ওষুধের দোকান-সহ নানা আপৎকালীন বন্দোবস্ত খোলা রাখা হবে বলে জানা যাচ্ছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment