দেশ 

আগামী কালই মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় আস্থা ভোট নিতে কমল নাথকে নির্দেশ দিলেন রাজ্যপাল , সুপ্রিম কোর্টের দিকে তাকিয়ে কংগ্রেস

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাজ্যপাল কমলনাথকে সোমবারই বিধানসভায় আস্থা ভোট নিতে বলেছিলেন । কিন্ত কমলনাথ রাজ্যপালকে জানিয়ে দেন বিধানসভার ভেতরে শুধুমাত্র স্পীকারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত হবে । তাই আজ সোমবার আস্থা ভোট হয়নি ।বরং স্পীকার এদিন ২৬ মার্চ পর্যন্ত বিধানসভার অধিবেশন স্থগিত করে দেন । এতে রাজ্যপাল ক্ষুদ্ধ হয়েছেন তিনি আবার আজ কমলনাথকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন আগামী কাল মঙ্গলবার আস্থা ভোট নিন ।

তাঁর নির্দেশ, মঙ্গলবারের মধ্যে নিজের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করুন। নাহলে প্রমাণ হয়ে যাবে, আপনার সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠ নয়।এদিকে, মঙ্গলবার কমল নাথকে তীব্র সুরে বিঁধেছেন তাঁর পূর্বসূরী শিবরাজ সিং চৌহান। তাঁর বক্তব্য, কোনওভাবেই মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকার বাঁচানো যাবে না। এমনকী করোনা ভাইরাসও বাঁচাতে পারবে না কমল নাথকে। কমল নাথ সরকার সোমবার মহারাষ্ট্রে আস্থাভোটের আয়োজন না করায়, শিবরাজ যে যারপরনাই অসন্তুষ্ট তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তাঁর অভিযোগ, করোনা ভাইরাকসে ঢাল করে আস্থাভোট এড়িয়ে যেতে চাইছে কংগ্রেস সরকার। সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই জেনেই নানান অজুহাত দেখাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ।

উল্লেখ্য, সোমবারই মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় আস্থাভোট করানোর নির্দেশিকা দিয়েছিলেন রাজ্যপাল লালজি ট্যান্ডন। কিন্তু, স্পিকার পিএন প্রজাপতি সেই নির্দেশ উপেক্ষা করেন। রাজ্যপালের অভিভাষণের পরই মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার অধিবেশন ১০ দিনের জন্য মুলতুবি হয়ে যায়। অর্থাৎ তাঁর আগে আস্থাভোটের কোনও সম্ভাবনা নেই। স্পিকারের যুক্তি, করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে দেশের অনেক রাজ্যেই বন্ধ হচ্ছে । কিন্তু, স্পিকারের সেই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ বিজেপি প্রথমে সুপ্রিম কোর্ট এবং পরে রাজ্যপালের দ্বারস্থ হন। সুপ্রিম কোর্টে শিবরাজ সিং চৌহানরা আবেদন করেন ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আস্থা ভোট করানোর নির্দেশ দিতে। শীর্ষ আদালতে বিজেপির সেই আবেদনের শুনানি হবে মঙ্গলবার। সর্বোচ্চ আদালতে মামলা করার পরই শিবরাজ সিং হুঙ্কার দেন, মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকারকে করোনা ভাইরাসও বাঁচাতে পারবে না।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment