দেশ 

দিল্লির পর সিএএ বিরোধী আন্দোলনে উত্তপ্ত মেঘালয় , মৃত ১ ছ’জেলায় কার্ফু জারি

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : দিল্লিতে সিএএ বিরোধী আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় সমগ্র দেশজুড়ে প্রতিবাদে সরব হচ্ছে ঠিক সেই সময় এবার সিএএ বিরোধী আন্দোলনে মেঘালয় উত্তপ্ত হয়ে উঠল । দিল্লির আন্দোলনকে মুসলিমদের আন্দোলন বলে চিহ্নিত করে দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে বিভেদ তৈরি করার চেষ্টা করে গেছেন বিজেপির নেতা-মন্ত্রী । কিন্ত মেঘালয়ের আন্দোলনে ব্যাকফুটে শাসক দল।

গতকাল থেকে সিএএ বিরোধী আন্দোলনে উত্তাল হয়ে উঠেছে উত্তর পূর্বের এই রাজ্য। ইতিমধ্যেই একজনের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় শিলংয়ে জারি করা হয়েছে কার্ফু। ৬ জেলায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা।সিএএ বিরোধী আন্দোলনের আঁচ এবার পৌঁছে গিয়েছে উত্তর পূর্বের রাজ্য মেঘালয়ে। খাসি স্টুডেন্টস ইউনিয়ন এবং আদিবাসী নয় যাঁরা তাঁদের সঙ্গে সংঘর্ষে দফায় দফায় উত্তাল হয়ে উঠেছে রাজধানী শিলং সহ মেঘালয়ের একাধিক জায়গা। পূর্ব খাসি হিলসে সংঘর্ষে একজনের মৃত্যু হয়েছে। দুই সংগঠনের মধ্যে সিএএ এবং ইনার লাইন পারমিট নিয়ে বিবাদ চলছিল। শুক্রবার সমস্যা সমাধানে বৈঠক বসেছিল ইচামতী এলাকায়। সেখানেই সংঘর্ষ বাঁধে দুই দলের মধ্যে। সেখানেই মৃত্যু হয় একজনের।

শুক্রবার থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষে উত্তাল হয়েছে শিলং সহ মেধালয়ের ৬ জেলা। তারপরেই বিকেল থেকে শিলং এবং সংলগ্ন এলাকায় কার্ফু জারি করা হয়। শুক্রবার রাত ১০টা থেকে কার্ফু জারি করা হয়েছে। এর পাশাপাশি মেঘালয়ের ৬ জেলায় মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পূর্ব জয়ন্তিয়া হিল, পশ্চিম জয়ন্তিয়া হিলস, রি ভোই, পশ্চিম খাসি হিলস, দক্ষিণ-পশ্চিম খাসি হিলস। ৪৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে ইন্টারনেট ও মোবাইল পরিষেবা।সিএএ বিরোধী আন্দোলন চরম আকার নিয়েছে রাজধানী দিল্লিতেও। হিংসাত্মক আন্দোলনে প্রায় ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত শতাধিক। একাধিক জায়গায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে পুলিস প্রশাসন। এই নিয়ে রাজনৈতিক চাপান উতোর।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment