দেশ 

‘‘দিল্লিতে শান্তি রক্ষায় ব্যর্থ হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার” : প্রিয়াঙ্কা , ‘‘এই সংঘর্ষের পিছনে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র রয়েছে”: সোনিয়া

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : শুরু করেছিলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। তিনি আজ সাংবাদিক সম্মেলন করে অমিত শাহের পদত্যাগ দাবি করেন । এরপরেই দিল্লিতে শান্তি ফেরানোর দাবিতে এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পদত্যাগের দাবিতে মিছিল করে তাঁর বাসভবন যাওয়ার চেষ্টা করেন প্রিয়াঙ্কার গান্ধী নেতৃত্বে কংগ্রেস কর্মীরা। কিন্ত পথে পুলিশ তাদেরকে আটকে দেয় ।এ প্রসঙ্গে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘‘দিল্লিকে এই ভাবে ধ্বংস করা হচ্ছে। দিল্লিতে শান্তি রক্ষায় ব্যর্থ হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। দেশের রাজধানীতে শান্তি ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব এখন সরকার আর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীরই।’’

সিএএ-বিরোধী ও সিএএ-পন্থীদের সংঘর্ষে গত চার দিন ধরে অগ্নিগর্ভ দিল্লি। অন্তত ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে এখনও পর্যন্ত। বুধবার সাংবাদিক সম্মেলন করে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী একের পর এক প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দিকে।এ দিন তিনি বলেন, ‘‘গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কোথায় ছিলেন? কী করছিলেন তিনি? পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে দেখেও কেন আগে থেকে আধাসেনা ডাকা হল না?’’

১৪৪ ধারা, কার্ফু জারি করেও দিল্লিতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না। স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠেছে দিল্লি পুলিশের ভূমিকায়। দিল্লির আইনশৃঙ্খলার ভার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের উপর। আর সেই মন্ত্রকের দায়িত্বে অমিত শাহ। সংঘর্ষ এত বড় আকার নেওয়ার জন্য শাহকেই নিশানা করে সোনিয়া এ দিন বলেন, ‘‘স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-সহ গোটা কেন্দ্রীয় সরকারই এর জন্য দায়ী। অমিত শাহের ইস্তফা দিন, এই দাবি করছে কংগ্রেস।’’

দিল্লির সংঘর্ষের জন্য বিজেপিকেই দায়ী করেছেন কংগ্রেস সভানেত্রী। তিনি বলেন, ‘‘এই সংঘর্ষের পিছনে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র রয়েছে। দিল্লির ভোটের সময় দেশবাসী সেটা দেখেছে। অনেক বিজেপি নেতা উস্কানিমূলক মন্তব্য করে ভয় ও হিংসার পরিবেশ তৈরি করেছে। এমনকি, গত রবিবারও এক বিজেপি নেতা একই রকম মন্তব্য করেছেন।’’

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment