দেশ 

শাহিন বাগও গণতন্ত্রের বড় উৎসবে সামিল হল , দিল্লিতে বিজেপির জয়ের স্বপ্ন ধুলিসাৎ!

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : দিল্লির শাহিন বাগ আজ ভোটের দিন বুঝিয়ে দিল তারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে , বিশ্বাস রাখে , ভোটদানও করে । সরকার গড়ার ক্ষেত্রে উপযুক্ত ভূমিকাও গ্রহণ করে । আজ ভোটের দিন নির্বাচন কমিশন পুলিশকে নির্দেশ দেয় কোনোভাবে যেন নিরাপত্তা বিঘ্নিত না হয় । চার দিকেই শুধু উর্দিধারী পুলিশ আর আধাসামরিক বাহিনীর জওয়ানরা টহল দিচ্ছেন শনিবার নির্বাচনের দিন গোটা শাহিন বাগ যেন নিরাপত্তার একটা নিশ্চিদ্র দুর্গে পরিণত হয়েছিল এক দিকে, আন্দোলনকারীরা, অন্য দিকে, ভোটাররা মাঝে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার বেড়া তুলে দাঁড়িয়ে ছিল পুলিশ দিন শাহিন বাগের মোটের উপর ছবিটা ছিল রকমই  

সকাল থেকেই শাহিন বাগ পাবলিক স্কুলে ভোটারদের লাইন ছিল চোখে পড়ার মতো। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে শাহিন বাগ গত দেড় মাসেরও বেশি সময় ধরে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে। সেই শাহিন বাগে ভোটারদের এমন উপস্থিতি কোন পথের ইঙ্গিত দিচ্ছে তা নিয়ে ইতিমধ্যেই জোরদার রাজনৈতিক চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে। দক্ষিণপূর্ব দিল্লির ডেপুটি পুলিশ কমিশনার আর পি মীনা বলেন, “আমরা সর্ব ক্ষণ আন্দোলনকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিলাম। পাশাপাশি, ভোটাররা যাতে নির্ভয়ে ভোট দিতে পারেন সে দিকটাও নজর রাখা হচ্ছিল। শাহিন বাগের বুথগুলোকে নিরাপত্তার বেড়াজালে মুড়ে ফেলা হয়।

 অরবিন্দ কেজরীওয়ালের আম আদমি পার্টি যখন দিল্লিতে তাদের সরকারের উন্নয়নমূলক কাজ নিয়ে প্রচার চালানো শুরু করে, ঠিক তখনই মেরুকরণের রাজনীতি শুরু করে তাঁর পালের হাওয়া কেড়ে নেওয়ার কৌশল নেয় বিজেপি শাহিন বাগ নিয়ে কেজরীবালকে লাগাতার আক্রমণ করেন বিজেপির নেতানেত্রীরা শাহিন বাগকেমিনি পাকিস্তান’-এর তকমাও দেয় বিজেপি নেতারা শুধু তাই নয়, শাহিন বাগ নিয়ে কেন চুপ কেজরীওয়াল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে ভোটের হাওয়া নিজেদের দিকে টানার লাগাতার চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছে বিজেপি

লাগাতার আক্রমণের মুখে পড়ে কেজরীবাল শেষমেশ শাহিন বাগ নিয়ে মুখ খোলেন। তার পরেও আক্রমণ থামেনি বিজেপির। শাহিন বাগের আন্দোলনকারীদের মদত দেওয়ার অভিযোগ তুলে কেজরীওয়ালকে কার্যত তুলোধনা করে বিজেপি। নরেন্দ্র মোদী থেকে অমিত শাহসকলেই শাহিন বাগ সম্পর্কে দিল্লি সরকারের ভূমিকা নিয়ে সুর চরমে তোলেন। ভোটের দিনও শাহিন বাগ ছিল বিজেপির নিশানায়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ যেমন বলেন, দিল্লিকে ইসলামিক অঞ্চল হওয়ার থেকে বাঁচাতে বিজেপিকে ভোট দিন। আবার প্রবেশ বর্মা বলেন, “শাহিন বাগের ভোটাররা আম আদমি পার্টির কাছে ঋণী। কারণ আপ বিনামূল্যে বিরিয়ানি বিলিয়েছেন ওঁদের।শাহিন বাগের ভোটারের উপস্থিতি কি বদলে দেবে রাজধানীর রাজনৈতিক চিত্র, তা নিয়েই জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে

তবে সন্ধ্যায় নির্বাচন শেষ হওয়ার পরেই বুথ ফেরত সমীক্ষায় স্পষ্ট হয়ে যায় দিল্লিতে বিজেপি এবারও ক্ষমতায় আসছে না । অরবিন্দ কেজরিওয়ালের উন্নয়নের স্লোগানেই আস্থা রাখতে চলেছে দিল্লিবাসী । আর এতে পরিস্কার হয়েছে মোদী-শাহ যতই শাহিন বাগ নিয়ে প্রচার করেছে ততই দিল্লিবাসী এককাট্টা হয়েছে । যার ফলে দিল্লিতে আপের প্রতি আস্থা দেখিয়েছে সাধারণ মানুষ ।

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment