জেলা 

মৌসমের হাত ধরে মালদায় বিজেপি-সিপিএমের ৫ জনপ্রতিনিধি যোগ দিলেন তৃণমূলে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ে অবস্থানে রাজ্যের অধিকাংশ মানুষ খুশি । আর এই সিএএ বিরোধী অবস্থান কাজে লাগিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস সাংগঠনিকভাবে অনেকটাই এগিয়ে যাবে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে । আর এর সুফল ফলতে শুরু করেছে । আজ রবিবার মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি মৌসম বেনজির নূরের নেতৃত্বে চাঁচল ১ নং পঞ্চায়েত সমিতির এক জন জনপ্রতিনিধি সি্পিএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন ।

পাশাপাশি এদিন চাঁচল এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের দু’জন বিজেপি সদস্য ও দুইজন সিপিএম সদস্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করে। বিজেপি গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য বিপ্লব মণ্ডল ও পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য অমিতেশ পাণ্ডে বলেন, এনআরসি ও সিএএ-এর প্রতিবাদে মমতা ব্যানার্জি দেশজুড়ে আন্দোলন তৈরি করেছে। দেশজুড়ে আন্দোলন করছে।সেই আন্দোলনে সামিল হতেই আমরা তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছি।জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী মৌসম বেনজির নূর বলেন, অন্যান্য দল থেকে মানুষ তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করছেন। কারন মানুষ বুঝতে পেরেছেন এনআরসি, এনপিআর, সিএএ-এর প্রতিবাদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করতে পারেন। সেই কারণেই তারা দলে যোগদান করছেন।

সিপিএমের জেলা সম্পাদক অম্বর মিত্র বলেন, যারা গেছে তাতে আমাদের কোন কিছু যায় আসে না। কারণ দীর্ঘদিন ধরেই তাদের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই। অন্যদিকে মালদা জেলার বিজেপি সভাপতি অজয় গাঙ্গুলী বলেন, শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস যে সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছে। বন্দুকের ভয় দেখিয়ে প্রলোভন দিয়ে দলে যোগদান করাচ্ছে। যারা বিজেপি থেকে গেছে বলা হচ্ছে তারা বিজেপিতেই আছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment