কলকাতা 

আহমদ হাসান ইমরানের পুনরায় রাজ্যসভায় যাওয়া অনিশ্চিত ! তৃণমূলের টিকিটে রাজ্যসভায় প্রশান্ত কিশোর ?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্মৃতি সামন্ত : জনতা দল ইউনাইটেড থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে ইলেকশন স্ট্রাটেজিস্ট প্রশান্ত কিশোরকে। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন থেকে শুরু করে এনআরসি কিংবা এনপিআর – কেন্দ্রীয় সরকারের সাম্প্রতিকতম নীতির বিরোধিতা করে আসছেন প্রশান্ত কিশোর। নীতীশ কুমারের জনতা দল ইউনাইটেড কেন্দ্রের এনডিএ সরকারের শরিক। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের পক্ষেই সংসদে ভোট দেন জনতা দল ইউনাইটেডের সাংসদরা। আর নিজের দলের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব হন প্রশান্ত কিশোর। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জোর শোরগোল পড়ে যায়। জাতীয় রাজনীতিতে এ নিয়ে চরম বিধ্বস্ত হতে হয় নীতীশ কুমারের পার্টিকে। দলের সহ-সভাপতি হয়ে প্রশান্ত কিশোর যেভাবে দলের বিরুদ্ধে সংবাদমাধ্যমের সামনে সরব ছিলেন তা নিয়ে নিতীশ কুমারকে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। শেষ পর্যন্ত তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয় জনতা দল ইউনাইটেড।
আর এর পরেই এক নতুন জল্পনা রাজনৈতিক মহলে। তৃণমূল কংগ্রেসের রাজনৈতিক কৌশলের দায়িত্ব এখন প্রশান্ত কিশোরের কাঁধে। রাজনৈতিক স্ট্র্যাটেজি তৈরিতে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছেন। তিনি তৃণমূলের রাজনৈতিক স্ট্র্যাটেজিস্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর উপনির্বাচনে সফল হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যে তিনটি বিধানসভার উপনির্বাচনেই তৃণমূল প্রার্থীরা জয়লাভ করেন।
চলতি বছরে রাজ্যে পাঁচটি রাজ্যসভার আসনের নির্বাচন। এই পাঁচটি আসনের মধ্যে চারটি তৃণমূল এবং একটি সিপিএমের দখলে রয়েছে। বিধানসভায় বিধায়কদের সংখ্যাতত্ত্বের হিসেবে এবারও চারটি আসন নিশ্চিত তৃণমূলের। তবে সিপিএমের একার পক্ষে রাজ্যসভায় একজন প্রার্থীকে জেতানোর সম্ভব নয়। কংগ্রেসের সমর্থন পেলে তবে সিপিএম তাদের একজন প্রার্থীকে জিতিয়ে নিয়ে যেতে পারবে। তৃণমূলের যে চারজন সংসদের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে তারা হলেন , দোলা সেন , কেডি সিং, আহমেদ হাসান ইমরান এবং যোগেন চৌধুরী। সিপিএমের বহিস্কৃত সাংসদ ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়েররও মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তৃণমূলের দোলা সেন আবারো প্রার্থী হতে চলেছেন বলেই তৃণমূল সূত্রের খবর। তবে আর টিকিট পাচ্ছেন না আহমেদ হাসান ইমরান এবং কেডি সিং। যোগেন চৌধুরী আর সাংসদ হতে রাজি নন তা চিঠি লিখে দলকে আগেই জানিয়ে দিয়েছেন। নতুন তিনজন প্রার্থী বাছাই করতে চলেছে তৃণমূল। রাজনৈতিক মহলে জোর চর্চা, জনতা দল ইউনাইটেড প্রশান্ত কিশোরকে বহিষ্কার করার পর তৃণমূলের রাজ্যসভার প্রার্থী হতে পারেন তিনি। যদি তা হয় তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর বড় রাজনৈতিক চাল হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। তৃণমূলের অন্দরমহলের খবর বাকি দুটি আসনের জন্য রাজ্যের দুজন বর্ষিয়ান মন্ত্রীর কথা মাথায় রয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমো।

নীতিশ কুমার বুধবার প্রশান্ত কিশোরকে দল থেকে বহিষ্কার করার পরই রাজনৈতিক মহলে নতুন জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে৷ তাহলে কি এবার প্রশান্ত কিশোরকে তৃণমূলের টিকিটে রাজ্যসভায় পাঠিয়ে জাতীয় রাজনীতিতে ‘মাস্টারস্ট্রোক’ দিতে চলেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ?
সরস্বতী পুজোর দিন এই আলোচনাতেই সরগরম রাজ্য-রাজনীতি৷
বিজেপি’র সঙ্গে সখ্য বজায় রাখতেই JDU সভাপতি নীতিশ কুমার সম্ভবত দল থেকে বহিষ্কার করলেন দলের জাতীয় সহ-সভাপতি প্রশান্ত কিশোরকে৷ এই প্রশান্তের আর একটি পরিচয়, তিনি ‘ইলেকশন- স্ট্র্যাটেজিস্ট’৷ এই মুহুর্তে তিনি তৃণমূল কংগ্রেস-সহ দেশের কয়েকটি দলের পরামর্শদাতা৷


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment