জেলা 

জলঙ্গী কান্ড : সিএএ নিয়ে দ্বিচারিতা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় : অধীর চৌধুরি

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সিএএ বিরোধী বনধের সমর্থকদের গুলি করে মারার বিষয়ে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মুর্শিদাবাদের ভূমিপুত্র ও বহরমপুরের সাংসদ এবং লোকসভার কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরি । তিনি প্রশ্ন তুলেছেন , ‘‘যে নাগরিক আইনের বিরোধিতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে করেন, সেই আইনের বিরোধিতা যখন সাধারণ মানুষ করছেন, তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লোক সেখানে হামলা করছে কেন?’’ লোকসভার কংগ্রেস দলনেতার ব্যাখ্যা, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সব সময় বলেন, আন্দোলন করো, কিন্তু বন্‌ধ পালন করা চলবে না। রাস্তা অবরোধ করা চলবে না। অথচ, এই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা জীবন ধরে বন্‌ধ পালন করেছেন, রাস্তা অবরোধ করছেন, বিধানসভা ভেঙেছেন, বাস রুখেছেন, বাসে আগুন লাগিয়েছেন, রাইটার্স বিল্ডি‌য়ের সামনে আন্দোলন করে ১৩টা যুবকের মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন। তখন তাঁর কিছু ভুল ছিল না। কিন্তু, আজ যাঁরা আন্দোলন করার সময় বন্‌ধ পালন করার দাবি জানাচ্ছেন, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোখে তাঁরা বিদ্রোহী, তাঁরা সমাজবিরোধী, তাঁরা শত্রু।’’

অধীর চৌধুরি আরও বলেন, ‘‘মমতার সেই মানসিকতাকে কাজে লাগিয়েই মুর্শিদাবাদের স্থানীয় তৃণমূল নেতারা সাধারণ মানুষের উপরে হামলা চালালেন এবং মৃত্যু হল।’’ জেলা প্রশাসনকে তীব্র আক্রমণ করে অধীর বলেছেন, ‘‘ওখানকার প্রশাসনের একটাই কাজ, কংগ্রেসকে দুর্বল করো, বামপন্থীদের দুর্বল করো, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শক্তিশালী করো। ফলে, বাকি যা কিছু হবে হোক, তাঁদের মাথাব্যথা নেই। প্রশাসনের এই নির্বিকার আচরণের কারণে দিনদুপুরে এই রকম একটা ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটল।’’

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment