কলকাতা 

প্রজাতন্ত্র দিবসের শুভেচ্ছায় কলকাতা পুরসভার ফেসবুক পেজে দেশের বিকৃত মানচিত্র পোস্ট করার অভিযোগ , ‘‘মিনি পাকিস্তানের প্রবক্তা তো ফিরহাদ হাকিম’’ কটাক্ষ বিজেপির সায়ন্তন বসুর , মমতাকে আক্রমণ সিপিএমের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ফিরহাদ হাকিম পরিচালিত কলকাতা পুরসভার শুভেচ্ছা বার্তায় দেশের মানচিত্রকে বিকৃত করে প্রকাশ করে হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে । আর কলকাতার পুরসভা ফেসবুক পেজে দেওয়া এই শুভেচ্ছা প্রকাশ হওয়ার পর থেকে দেশজুড়ে শুরু হয়েছে বির্তক । দেশের ৭১তম প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে রবিবার সকালে নিজেদের ফেসবুক পেজে একটি শুভেচ্ছাবার্তা পোস্ট করে কলকাতা পুরসভা। মেয়র ফিরহাদ হাকিমের ছবি এবং কলকাতা পুরসভার লোগো সম্বলিত সেই শুভেচ্ছায় লেখা হয়, ‘‘এই প্রজাতন্ত্র দিবস, গাঢ় হোক একতার রঙ!’’

কিন্তু তেরঙায় রাঙানো সেই শুভেচ্ছা বার্তায় ভারতের যে মানচিত্রের ছবিটি দেওয়া হয়, সেটি বিকৃত। মানচিত্রে পাক অধিকৃত কাশ্মীর এবং চিনের কব্জায় থাকা আকসাই চিনকে বাদ দেওয়া হয়েছে ভারত থেকে। এই বিষয়টি নজরে আসতেই তুমুল হইচই শুরু হয় নানা মহলে।পাকিস্তান এবং চিন যে মানচিত্র প্রকাশ করে, তাতে ভারতকে ওই ভাবে দেখানো হয়। অর্থাৎ পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে পাকিস্তানের এবং আকসাই চিনকে চিনের অংশ হিসেবে দেখানো হয় ওই সব মানচিত্রে। কিন্তু ভারত কখনও ওই দুই অঞ্চলের উপরে নিজেদের দাবি ছাড়েনি। পাক অধিকৃত কাশ্মীর এবং আকসাই চিন ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে ভারত সরকার বরাবর দাবি করে এসেছে। ভারতের মানচিত্র থেকে যেন ওই দুই অঞ্চলকে বাদ দিয়ে দেখানো না হয়— এ বার্তা গুগ্‌লকেও দিয়ে রেখেছে নয়াদিল্লি। এত কিছুর পরেও কলকাতা পুরসভার শুভেচ্ছাবার্তায় দেখানো মানচিত্রে ওই দুই অঞ্চল বাদ পড়ায় বড়সড় বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

কী ভাবে ঘটল এই ঘটনা? কে তৈরি করলেন এই শুভেচ্ছাবার্তা? মেয়র ফিরহাদ হাকিম বা পুরসভার অন্য কোনও কর্তার চোখে কি ধরাই পড়ল না বিষয়টা? এমন নানা প্রশ্ন তৈরি হয়েছে পুরসভার ফেসবুক পোস্টটিকে ঘিরে।বিষয়টি সম্পর্কে জানার জন্য মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে একাধিক বার ফোন করেও তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ অবশ্য বলেছেন, ‘‘যদি এটা হয়ে থাকে, তা হলে ভুল হয়েছে। এ রকম হওয়া উচিত নয়। খতিয়ে দেখছি।’’

এদিকে রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু তীব্র আক্রমণ করেছেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি বলেন, ‘‘মিনি পাকিস্তানের প্রবক্তা তো এই ফিরহাদ হাকিমই। তাই তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরানের খানের নির্দেশে মানচিত্রটা বিকৃত করেছেন, কাশ্মীরকে ভারতের মানচিত্র থেকে বাদ দিয়ে দেখিয়েছেন।’’ এতেই থামেননি সায়ন্তন। তাঁর কথায়, ‘‘আমরা বার বারই বলছি, পশ্চিমবঙ্গকে পশ্চিম পাকিস্তান বানানোর চেষ্টা চলছে। এটাও সেই চেষ্টারই অঙ্গ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নির্দেশে এ সব করাচ্ছেন।’’

বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীর কথায়, ‘‘ফিরহাদ হাকিম একটা গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন। তিনি কলকাতার মেয়র। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেখুন, ভারতের মানচিত্র নিয়ে কী হচ্ছে! তিনি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) দ্রুত এই ভুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। আমরা তা দেখতে চাই।’’

কলকাতা পুরসভার নির্বাচনের আগে মানচিত্র বির্তক যে আরও দানা বাধবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না । কারণ বিকৃত মানচিত্র পোস্ট করার সব দায় নিতে হবে মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে । এখন দেখার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই সংবেদনশীল ইস্যুতে কী ভূমিকা নেন ?

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment