দেশ 

‘‘যত প্রতিবাদই হোক, সিএএ প্রত্যাহার করা হবে না, থাকবেই” : অমিত শাহ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  ‘‘যত প্রতিবাদই হোক, সিএএ প্রত্যাহার করা হবে না, থাকবেই।” আজ লখনউতে এক জনসভায় একথা স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ । তিনি এদিন বলেন , ‘‘এখানে এবং এখন আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, এই আইন (সিএএ) প্রত্যাহার করা হবে না। যে যত প্রতিবাদই করুন, আমরা বিরোধীদের ভয় পাই না। সিএএ থাকবেই। বিরোধীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘‘বিরোধীরা বুঝতে পারছেন না, কারণ তাঁদের চোখে ভোট রাজনীতির চশমা পরা আছে।’’

মমতা, মায়াবতী, অখিলেশদের বিরুদ্ধে মিথ্যে প্রচারের অভিযোগ তুলে বিতর্কের আহ্বান জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। একই অনুপ্রবেশ ও সন্ত্রাসবাদে মদতের অভিযোগে কংগ্রেসকে কাঠগড়ায় তুলেছেন সদ্য প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ।

নয়া নাগরিকত্ব আইন পাশ হওয়ার পর সবচেয়ে বেশি অগ্নিগর্ভ প্রতিবাদ হয়েছিল লখনউয়ে। ব্যাপক ভাঙচুর, অগ্নি সংযোগে উত্তাল হয়ে উঠেছিল উত্তরপ্রদেশের রাজধানী শহর। পুলিশের বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগও উঠেছিল। আবার ওই বিক্ষোভ-আন্দোলন পর্বে উত্তরপ্রদেশেই ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। দিল্লির শাহিনবাগের ধাঁচে সেখানকার ঘণ্টাঘর-এর কাছে এখনও অবস্থান-বিক্ষোভে শামিল মহিলা ও শিশুরা।

সেই লখনউয়ে দাঁড়িয়েই এ দিন অমিত শাহের হুঙ্কার, এর পরেই অমিতের নিশানায় কংগ্রেস, উত্তরপ্রদেশের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মায়াবতী ও অখিলেশ যাদব এবং বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, মমতা দিদি, মায়াবতীজি, অখিলেশজি, নাগরিকত্ব আইন নিয়ে আপনাদের দেশের যে কোনও প্রান্তে বিতর্কে আহ্বান জানাচ্ছি। আমি হলফ করে বলতে পারি, আপনারা (এই আইনে) এমন কোনও ধারা দেখাতে পারবেন না, যাতে বলা হয়েছে, কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হবে।’’

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহারের দাবিতে দেশজুড়ে আন্দোলন চলছে , ঠিক এই সময় অমিত শাহের এই মন্তব্য যে দেশের রাজনীতিতে প্রভাব ফেলবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না ।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment