দেশ 

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় এবার মমতা সহ অ-বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীদের চিঠি দিয়ে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করার ডাক দিলেন বিজয়ন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করল সিপিএম । বাম শাসিত একমাত্র রাজ্য কেরালা তথা দেশের একমাত্র বাম মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন সিএএ বিরোধিতায় সকলকে একজোট হওয়ার আহ্বান জানিয়ে এ মুহূর্তে দেশের ১১ অবিজেপি মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখলেন । পশ্চিমবঙ্গ, অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহার, দিল্লি, ঝাড়খণ্ড, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা, পাঞ্জাব, পুদুচেরি, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রীদের এদিন চিঠি দিয়েছেন বিজয়ন। উল্লেখ্য, এই রাজ্যগুলির মধ্যে বিহারই একমাত্র রাজ্য, যেখানে এনডিএ শরিক নীতীশ কুমারের জেডিইউয়ের সরকার এবং সিএএ সমর্থন করলেও তাঁর দল এনআরসি সমর্থন করবে না বলে জানিয়েছেন নীতীশ কুমার।

জানা যাচ্ছে, চিঠিতে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, ‘‘নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে ঘিরে দেশের বৃহত্তর অংশ আতঙ্কে ভুগছে। গণতন্ত্র ও ধর্মনিরেপক্ষতাকে রক্ষা করতে সকল দেশবাসীকে একজোট করার জন্য এটাই সময়’’।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই কার্যত নজিরবিহীনভাবে কেরালা বিধানসভায় সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পেশ করেছিল বিজয়ন সরকার। সেই প্রস্তাবকে সমর্থন করেছিল সে রাজ্যের বিরোধী কংগ্রেসও। এরপরই কেরালা সরকারের এহেন পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে বিজেপি। সম্প্রতি কেরালার রাজ্যপালও দাবি করেছেন, বিজয়ন সরকারের সিএএ বিরোধী প্রস্তাবের সাংবিধানিক বৈধতা নেই।

এই প্রেক্ষিতে সিএএ ইস্যুতে কেরালার মুখ্যমন্ত্রীর এহেন চিঠি রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহলের একাংশ। এর আগে বিধানসভার বিতর্কের সময় মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজায়ন বলেছিলেন, ‘‘সিএএ ভারতীয় সংবিধানের মূল্যবোধ ও মূলনীতির পরিপন্থী। নয়া আইন দেশবাসীর মধ্যে ভীতির সঞ্চার করেছে। এ বিষয়টি বিবেচনা করে কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত ওই আইন প্রত্যাহার করা’’।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment