দেশ 

রাজস্থানে শিশু-মৃত্যু ১০০ ছাড়াল , উদ্বিগ্ন সোনিয়া রিপোর্ট চাইলেন গেহলটের কাছে , উদ্বেগ প্রকাশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর , কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের রাজ্যে আসার আমন্ত্রণ মুখ্যমন্ত্রীর , সোনিয়া-প্রিয়াঙ্কাকে টার্গেট করে আক্রমণ যোগী-মায়াবতীর

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  রাজস্থানে শিশু মৃত্যু বেড়েই চলেছে । ডিসেম্বর মাস থেকে জানুয়ারির ২ তারিখ পর্যন্ত সরকারি হসাবে ১০২ জনের মৃত্যু হয়েছে । আর এই শিশু মৃত্যুকে কেন্দ্র করে রাজনীতি শুরু হয়েছে । এদিকে শিশু মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে রিপোর্ট তলব করেছে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ।কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটকে চিঠি দিয়েছেন। চিঠির উত্তরে ওই রাজ্যে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের পরিদর্শনের আহ্বান জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ  শিশুমৃত্যুর ঘটনা নিয়ে। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘‘কোটার ঘটনা অত্যন্ত বেদনাদায়ক। মায়েদের এই ক্ষতি সভ্যতাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করায়। মেয়ে হয়েও বিষয়টি কংগ্রেস দলনেত্রী সোনিয়া গাঁধী, সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা বুঝতে পারছেন না, এটা দু:খের।’’  সুর চড়িয়েছেন বহুজন সমাজবাদী পার্টি নেত্রী মায়াবতীও। অশোক গহলৌতের ভূমিকাকে ‘অসংবেদনশীল’ আখ্যা দেন তিনি।  মায়াবতী প্রশ্ন তুলছেন সোনিয়া-প্রিয়াঙ্কার ভূমিকা নিয়েও।  কিছুদিন আগেই প্রিয়ঙ্কা উত্তরপ্রদেশে পুলিশের গুলিতে নিহত প্রতিবাদীদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। প্রিয়াঙ্কা। পুলিশ তাঁদের সেখানে ঢুকতে দেয়নি। সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে মায়াবতী টুইটারে লিখেছেন, ‘‘আজ যদি প্রিয়াঙ্কা কোটা না যান, তাহলে সেদিন তিনি রাজনৈতিক নাটক করছিলেন।’’

এ দিন কোটার শিশুমৃত্যু বিষয়ে মুখ খোলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধনও। সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান, ‘‘আমি রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটকে চিঠি দিয়েছি। আমি আশা করব বিষয়টি তিনি গুরুত্ব দিয়ে বিচার করবেন।’’ পাল্টা টুইট করেন অশোক গেহলট, ‘‘আমি কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের অনুরোধ করছি রাজস্থানের স্বাস্থ্যব্যবস্থা পরিদর্শনে আসার। আমরা শিশুমৃত্যুর বিষয়ে উদ্বিগ্ন। এখানে কোনও রাজনীতি আনা উচিত নয়। কোটার বার্ষিক মৃত্যুহারও কমেছে আগের তুলনায়।’’


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment