দেশ 

ঝাড়খন্ডের ১১ তম মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন হেমন্ত সোরেন , জেএমএম-কংগ্রেস জোটের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে হাজির বিজেপি বিরোধী জোটের নেতারা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : কংগ্রেস দলের সোনিয়া-রাহুল -প্রিয়াঙ্কা সহ বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সহ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-কানিমোঝি তেজস্বী যাদব , সীতারাম ইয়েচুরি ও ডি রাজা সহ দেশের প্রায় সব বিজেপি বিরোধী জোটের নেতাদের উপস্থিতিতে জেএমএম নেতা হেমন্ত সোরেন ঝাড়খন্ডের ১১তম মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন ।শপথের মঞ্চ হয়ে উঠল বিরোধী ঐক্যের নিদর্শন।

ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম)-এর কার্যকরী সভাপতি হেমন্ত সোরেন। তাঁর সঙ্গেই মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন জেএমএম-এর দু’জন কংগ্রেসের এক জন। রাঁচীর মোরাবাদী মাঠে সুবিশাল মঞ্চে শপথবাক্য পাঠ করালেন রাজ্যপাল দ্রৌপদী মুর্মু।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পৌঁছে গিয়েছিলেন শনিবারই। বাকি অতিথিদের মধ্যে ছিলেন অশোক গহলৌত, ভূপেশ বাঘেলের মতো মুখ্যমন্ত্রীরা। এ  ছাড়া কংগ্রেস নেতাদের মধ্যে রয়েছেন রাহুল গাঁধী, পি চিদম্বরম। ডিএমকে নেত্রী কানিমোঝি, শরিক আরজেডি নেতা লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র তেজস্বী যাদব-সহ দলের অন্য নেতারাও রয়েছেন শপথগ্রহণে। বাম দলের পক্ষ থেকে রয়েছেন সীতারাম ইয়েচুরি ও ডি রাজা।

৮১ আসনের ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনে ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা জেএমএম, কংগ্রেস এবং রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি) এক জোট হয়ে ভোটে লড়ে বিপুল সাফল্য পেয়েছে। একক বৃহত্তম দল হিসেবে জেএমএম ৩০টি আসন, কংগ্রেস ১৬টি এবং আরজেডির একটি আসন মিলিয়ে জোটের দখলে মোট ৪৭টি আসন। অন্য দিকে বিজেপি ২০১৪ সালে ৩৭ আসন পেয়েছিল। এ বার তাদের আসন কমে হয়েছে ২৫।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment