জেলা 

“আমি যতদিন জীবিত আছি, বাংলায় সিএএ করতে দেব না। কাউকে এই রাজ্য বা দেশ ছেড়ে বাইরে যেতে হবে না। এমনকী বাংলায় কোনও ডিটেনশন ক্যাম্পও হবে না।”: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : নাগরিকত্ব সংশোধিত আইন নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে সরব তা আর নতুন করে বলার অপেক্ষা করে না । তবে আজ উত্তর ২৪ পরগণার নৈহাটি উৎসবের সূচনা করে পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবরও মোদী অমিত শাহকে নিশানা করলেন ।

এবার তিনি নাগরিকত্ব আইন এবং বাংলায় ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি করা নিয়ে নৈহাটি উৎসবে মঞ্চ থেকে   ফের একবার বিরোধী সুর চড়ালেন মমতা। সাফ জানালেন তিনি যতদিন বেঁচে থাকবেন, ততদিন নাগরিকত্ব আইন বাংলায় লাগু করতে দেবেন না। মমতা বলেন, “আমি যতদিন জীবিত আছি, বাংলায় সিএএ করতে দেব না। কাউকে এই রাজ্য বা দেশ ছেড়ে বাইরে যেতে হবে না। এমনকী বাংলায় কোনও ডিটেনশন ক্যাম্পও হবে না।”

বৃহস্পতিবার নৈহাটির অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে সিএএর বিরুদ্ধে দেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভকে সমর্থনও করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তিনি বলেন, “শিক্ষার্থীরা ১৮ বছর হলে ভোট দিতে পারবেন অথচ প্রতিবাদ করতে পারবেন না কেন?” মমতা বলেন, “শিক্ষার্থীরা কেন কঠোর আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে পারবে না? কেন্দ্র প্রতিবাদী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে এবং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাঁদেরকে রাস্টিকেট করা হচ্ছে।”

যদিও ‘সারা দেশে এনআরসি এবং সিএএ লাগু করা হবে’ অমিত কন্ঠে এমন ঘোষণা হলেও তা মানতে নারাজ মমতা। বাংলায় যে তিনি কোনওভাবেই এনআরসি করতে দেবেন না, কথার ছত্রে ছত্রে তা বুঝিয়ে দেন তৃণমূল সুপ্রিমো। চলতি মাসে নাগরিকত্ব বিল আনার পরই রাজ্যজুড়ে জ্বলে ওঠে বিক্ষোভ-প্রতিবাদের আগুন। প্রসঙ্গত, নরেন্দ্র মোদীর ‘নো ডিটেনশন ক্যাম্প’-এর মন্তব্যর পর বিজেপি-কংগ্রেস তরজায় মাঝেই আজ ফের সরব হন মমতা।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment