কলকাতা 

জামিয়ার ছাত্রদের উপর পুলিশের বর্বরোচিত আক্রমণের নিন্দা করে , গান্ধীর পথেই আন্দোলন করার আহ্বান ছাত্র সমাজকে অপর্ণার

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : জামিয়া মিলিয়ার পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ালেন বিশিষ্ট অভিনেত্রী তথা পরিচালক অপর্ণা সেন । তিনি টুইটারে এক বিবৃতিতে বলেছেন , ”সাভারকারের ভারত দেশ চায় না। যুব সম্প্রদায় প্রতিবাদে গর্জে উঠছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে আক্রমণকারী প্রশাসনকে ধিক্কার। আমি পড়ুয়াদের পাশে রয়েছি।” একই সঙ্গে হিংসাত্মক আন্দোলন প্রত্যাহার করে গান্ধী পথ অহিংসার পথে আন্দোলন করার আহ্বান জানিয়ে অর্পণা সেন বলেছেন ,”দয়া করে প্রতিবাদ অহিংস রাখুন। তাহলে আমাদের প্রতিবাদ আরও জোড়ালো হবে। গান্ধীকে স্মরণ করার সময় আগত”, বার্তা অপর্ণা সেনের।

রবিবার জামিয়া মিলিয়া চত্বরে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের ওপর পুলিশি হানার জেরে দিল্লিতে ব্যাপক উত্তেজনার আবহ তৈরি হয়। অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণের ভেতর কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই জোর করে ঢুকে পড়ে পুলিশ, চালানো হয় কাঁদানে গ্যাস, এবং লাইব্রেরি ও মসজিদ থেকে টেনে বের করে এনে হামলা করা হয় পড়ুয়াদের ওপর। তারপর থেকেই দেশজুড়ে প্রতিবাদে সামিল হচ্ছে একের পর এক ক্যাম্পাস।

ছাত্রদের উপর পুলিশের বর্বরোচিত আক্রমণের নিন্দা করেছেন অপর্ণা। টুইট করে ছাত্রদের পাশে দাঁড়িয়েছেন অনুরাগ কাশ্যপ, তাপসী পান্নু, রিচা চাড্ডা, আয়ুষ্মান খুরানা, স্বরা ভাস্করের মতো শিল্পীরা।

জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনার পর গর্জে উঠেছে হায়দরাবাদ, মুম্বই, লখনৌ, চেন্নাই, এবং বেনারস সহ দেশের একাধিক শহরের ক্যাম্পাস। নাগরিকত্ব বিলের প্রতিবাদে ও জামিয়ার ঘটনায় সোচ্চার হয়েছে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়, দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, বেনারস হিন্দু ইউনিভার্সিটি, আইআইটি কানপুর, আইআইটি মাদ্রাস এবং আইআইটি বম্বে, জেএনইউ, মৌলানা আজাদ রাষ্ট্রীয় উর্দু বিশ্ববিদ্যালয়, ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ সায়েন্সের মতো প্রতিষ্ঠান।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment