আন্তর্জাতিক 

সংখ্যালঘু হিন্দুরা নির্যাতিত হচ্ছে সংসদে অমিতের দাবির জেরে কী ভারত সফর বাতিল করলেন বাংলদেশের বিদেশ মন্ত্রী ?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রী আবদুল মোমেন ভারত সফর বাতিল করেছেন । আজ বৃহস্পতিবার থেকে তিন দিনের জন্য ভারতে আসার কথা ছিল তাঁর । হঠাৎ শেষ মূহূর্তে তা বাতিল করা হয়েছে । কূটনৈতিক মহল সূত্রে জানা গেছে , মূলত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ভারতের সংসদে পাশ হওয়ার পর থেকে ভারত বন্ধু হিসাবে হাসিনা সরকার বেশ চাপে পড়েছে । কারণ ,সংসদে স্বারষ্ট্র অমিত শাহ বলেছেন ,বাংলাদেশে হিন্দুদের অত্যাচার হচ্ছে । তা নিয়ে গতকালই বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষৎকারে বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রী আবদুল মোমেন বলেছেন , অমিত শাহ এই কথা ঠিক নয় । বাংলাদেশে কোনো সংখ্যারঘু নির্যাতন হয় না । কিন্ত সংখ্যালঘু বলে কেউ নেই আমরা সবাই বাঙালি এটাই আমাদের পরিচয় বলে আবদুল মোমেন দাবি করেছেন । তবে সফর বাতিলের কারণ হিসেবে সরকারি ভাবে বাংলাদেশ সরকার এই কারণ দেখায়নি। ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকেরও প্রতিক্রিয়া, এই সফর বাতিলকে নাগরিকত্ব বিলের সঙ্গে জুড়ে দেখা উচিত হবে না।

আচমকা ভারত সফর বাতিল করলেন কেন? তার কারণ হিসাবে মোমেন জানিয়েছেন, ‘‘দিল্লি সফর বাতিল করতে বাধ্য হলাম কারণ আমাকে দেশে বুদ্ধিজীবী দিবস এবং বিজয় দিবসে অংশগ্রহণ করতে হবে। বিদেশমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী এই মুহূর্তে দেশের বাইরে, মাদ্রিদে এবং বিদেশ সচিব হেগে রয়েছেন। তাই চাপ থাকার জন্য আমি সফর বাতিল করলাম।’’

তবে কূটনৈতিক মহলের একটাংশ মনে করছে , সফর বাতিলের কারণ লুকিয়ে রয়েছে অন্য জায়গায়। বুধবার রাজ্যসভায় সিএবি নিয়ে আলোচনায়, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচারের অভিযোগ তোলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ওই দিনই তার প্রতিক্রিয়া দেন বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী। মোমেন দাবি করেন, এমন অভিযোগ সত্য নয়। তাঁর কথায়, ‘‘যিনিই এই তথ্য দিয়ে থাকুন না কেন, এটা সঠিক নয়। বিভিন্ন ধর্মের বহু মানুষই আমাদের দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেন। আমরা কখনই কাউকে ধর্মের ভিত্তিতে দেখি না।’’

একই সঙ্গে, ইতিহাসের কথা টেনে তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য করেন মোমেন। বলেন, ‘‘ভারত ঐতিহাসিক ভাবে সহিষ্ণু দেশ, যে দেশ ধর্ম নিরপেক্ষতায় বিশ্বাস করে। তবে সেই পথ থেকে তারা সরে এলে তাদের অবস্থান দুর্বল হবে। তাই আমরা বিশ্বাস করি, ভারত নিজের দেশে আশঙ্কা তৈরি হওয়ার মতো কিছুই করবে না।

মোমেনের সফর বাতিল নিয়ে ভারতের বক্তব্য, এই ঘটনাকে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের সঙ্গে জুড়ে দেখা উচিত হবে না। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, ‘‘আমাদের দু’দেশের সম্পর্ক সুদৃঢ়, যেমনটা দু’দেশের রাষ্ট্রনেতারা বলেছে, বার বার বলেছেন। আমি মনে করি এই সফর বাতিল সেই সম্পর্কে কোনও প্রভাব ফেলবে না।’’ ভারতে ‘ইন্ডিয়ান ওশিয়ান ডায়ালগ’-এ যোগ দেওয়ার কথা ছিল মোমেনের। আগামী ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারত সফরের সময়সীমা ছিল তাঁর।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment