কলকাতা 

‘‘ব্যাঙ্কের পদক্ষেপ নিয়েই জনগণের মধ্যে সন্দেহ দেখা দিচ্ছে। কেউ ভরসা করতে পারছেন না। ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলার পরিমাণ বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। বাড়িতে টাকা রাখলে নোটবন্দি হচ্ছে। আর ব্যাঙ্কে রাখলে লুঠবন্দি হচ্ছে।’’: মমতা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বৃহস্পতিবার ইনফোকমের সভায় দাঁড়িয়ে কড়া ভাষায় মোদী সরকারের সমালোচনা করলেন পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । অর্থনীতি প্রশ্নে তিনি বেশ কঠিন সুরে আক্রমণ করলেন মোদী সরকার । দেশের আর্থিক হাল খারাপ হওয়ার জন্য সরাসরি মোদীকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । দেশের অর্থনীতি ‘অন্ধকারতম’ সময়ে রয়েছে বলে মন্তব্য করে ঝাঁঝালো আক্রমণ শানালেন মোদী সরকারের বিরুদ্ধে।

কয়েক দিন আগে প্রকাশিত হয়েছে দেশের জিডিপি বৃদ্ধির সাম্প্রতিকতম হার। চলতি আর্থিক বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে বৃদ্ধির হার কমে দাঁড়িয়েছে ৪.৫ শতাংশে। তা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে গোটা দেশেই বিরোধী শিবির তীব্র আক্রমণ শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকারকে।সংসদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলও বিষয়টি নিয়ে তীব্র কটাক্ষে বিঁধতে শুরু করেছিল অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনকে। কিন্তু বৃদ্ধির হার ৪.৫ শতাংশে নামার পরে মমতা নিজে বিশদে মুখ খুললেন এই প্রথম। ইনফোকমের মতো বাণিজ্য সম্মেলনকেই তিনি বেছে নিলেন এ বিষয়ে মুখ খোলার উপযুক্ত মঞ্চ হিসেবে।

 ইনফোকমের উদ্বোধনী মঞ্চ থেকে নরেন্দ্র মোদীর সরকারকে তীব্র আক্রমণ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ দিন প্রশ্ন তোলেন, ‘‘কেন অকারণে শিল্পের সব ব্যাপারে নাক গলানো হবে? কেন শিল্পপতিদের নিয়ন্ত্রণ করা হবে? কেন ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে নিয়ন্ত্রণ করা হবে?’’ মমতার কথায়, ‘‘আমি সরকারে আছি। আমি উন্নয়নের কাজ করব। আমি পিছিয়ে পড়া মানুষের জন্য কাজ করব। আমি চাষির জন্য কাজ করব। কিন্তু রোজ ইনকাম ট্যাক্স, সেল ট্যাক্স, সিবিআই, ইডি বা এই এজেন্সি বা সেই এজেন্সিকে দিয়ে তল্লাশি করাব না।’’ কেন্দ্রীয় এজেন্সিগুলোকে যে ভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে, তাতে সবাই ভীত বলে এ দিন মন্তব্য করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কেন্দ্রীয় সরকার যে ভঙ্গিতে চলছে, তার জেরেই অর্থনীতির এই অবস্থা হচ্ছে বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ দিন দাবি করেন। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘দেশে অনিশ্চয়তার আবহ তৈরি হয়েছে।’’ সেই সঙ্গে কী ভাবে এই পরিস্থিতি তৈরি হল তারও ব্যাখ্যা দেন মমতা। তাঁর কথায়, ‘‘ব্যাঙ্কের পদক্ষেপ নিয়েই জনগণের মধ্যে সন্দেহ দেখা দিচ্ছে। কেউ ভরসা করতে পারছেন না। ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলার পরিমাণ বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। বাড়িতে টাকা রাখলে নোটবন্দি হচ্ছে। আর ব্যাঙ্কে রাখলে লুঠবন্দি হচ্ছে।’’

এ দিন এনআরসি প্রসঙ্গেও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সংসদের চলতি অধিবেশনেই পেশ হতে চলেছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। বুধবার তাতে অনুমোদনও দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। সেই বিল এবং এনআরসি নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ দাগেন মমতা। দেশে বিভাজনের রাজনীতি চলছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment