কলকাতা 

মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় ছাত্রীদের জয়জয়কার , প্রথম দশে পাঁচ মুসলিম পড়ুয়া

শেয়ার করুন
  • 16
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান। অবশেষে আজ, প্রকাশিত হল মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফল। এবারের মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় মেয়েদের আধিপত্য বেশি। প্রথম দশে ঠাঁই পেয়েছে মোট ৫৬ জন। এর মধ্যে মেয়ে রয়েছে প্রায় ২০ জন।হাইমাদ্রাসা পরীক্ষার মতোই এবারের মাধ্যমিকেও সাফল্যের হারর নিরীখে শীর্ষস্থানে রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর। এই জেলায় শতকরা পাশের হার ৯৬ শতাংশের বেশি। এর পরেই রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর। এই জেলায় পাশের হার ৯১ শতাংশ। এছাড়া রাজ্যের নতুন জেলা কালিম্পংও মাধ্যমিকে ভালো ফল করেছে। এই জেলায় পাশের হার ৮৬.৯৫ শতাংশ।

এবারের মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছে সঞ্জীবনী দেবনাথ। কোচবিহার সুনীতি অ্যাকাডেমির ছাত্রী সে। ৭০০-র মধ্যে ৬৮৯ পেয়েছে সে। দ্বিতীয় হয়েছে বর্ধধমান সাতগাছিয়া হাইস্কুলের শীর্ষেন্দু সাহা। তার প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৮। তৃতীয় স্থানে রয়েছে মোট ৩ জন। এরা হল কোচবিহার সুনীতি অ্যাকাডেমিরই ছাত্রী ময়ূরাক্ষী সরকার। তার প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৭। জলপাইগুড়ি জিলা হাইস্কুলের ছাত্র নীলাব্জ দাসও একই নম্বর তৃতীয় স্থানে রয়েছে। এছাড়া তৃতীয়স্থানে রয়েছে আরও একজন। জলপাইগুড়ি জিলা স্কুলেরই পড়ুয়া মৃন্ময় মন্ডল। তারও প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৭। এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষার মেধাতালিকায় মোট ৫৬ জনের মধ্যে মুসলিম পড়ুয়া রয়েছে ৫ জন।

এদের মধ্যে প্রথমস্থানে রয়েছে দক্ষিণ দিনাজপুরেরর বংশীবিহারী হাইস্কুলের ছাত্রী জুমানা নারজিস। এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৭০০-র মধ্যে ৬৮২ নম্বর পেয়ে মেধাতালিকায় অষ্টম স্থানে রয়েছে সে। এর পরেই রয়েছে মালদার মোজামপুর উচ্চ মাধ্যমিক হাইস্কুলের ছাত্র মুহাম্মদ রফিকুল হাসান। মাধ্যমিকে ৬৮১ নম্বর পেয়ে মেধাতালিকায় নবম স্থানে রয়েছে রফিকুল। একই নম্বর পেয়ে মেধাতালিকার নবম স্থানে রয়েছে আরও এক মুসলিম ছাত্র। বীরভূমের সিউড়ি পাবলিক অ্যান্ড চন্দ্রঘাঁটি  মুস্তাফি মেমোরিয়াল হাইস্কুলের ছাত্র সোহম আহমেদ। মালদা রামকৃষ্ণ মিশন বিবেকানন্দ বিদ্যামন্দিরের ছাত্র মীর মুহাম্মদ ওয়াসিফ ৬৮০ নম্বর পেয়ে মেধাতালিকায় দশম স্থান অধিকার করেছে। এছাড়া মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় ঠাঁই করে নিয়েছে আরও এক মুসলিম ছাত্রী। মালদার বামনগ্রাম এইচএমএএম হাইস্কুলের ছাত্রী তামান্না ফিরদৌস। মাধ্যমিকে ৬৮০ নম্বর পেয়ে দশম স্থান অধিকার করেছে সেও।

এদের প্রত্যেকের ফলাফলে অত্যন্ত খুশি পরিবারের লোকজন। সেইসঙ্গে মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। এছাড়া স্কুল ও গৃহশিক্ষকদেরকেও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।


শেয়ার করুন
  • 16
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment