জেলা 

দলের ক্ষতি করলে কাউকেই রেয়াত নয়, উত্তর দমদম পুরসভার পুর প্রধান ও উপ প্রধানকে পদ থেকে সরিয়ে বার্তা দিল তৃণমূল

শেয়ার করুন
  • 28
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে লাগাম দিতে এবার খড়্গহস্ত তৃণমূল কংগ্রেস।  দীর্ঘদিন ধরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে অভিযুক্ত উত্তর দমদম পুরসভার পুরপ্রধান কল্যাণ কর ও উপপুরপ্রধান শেখ নাজিমুদ্দিনকে বদলের সিদ্ধান্ত নিল তৃণমূল কংগ্রেস। পুরসভার নতুন প্রধান হচ্ছেন সুবোধ চক্রবর্তী ও উপপুরপ্রধান হচ্ছেন লোপামুদ্রা দত্ত চৌধুরী। আজ খাদ্যভবনে দলীয় একটি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

নতুন পুরপ্রধান সুবোধ চক্রবর্তী ও উপপুরপ্রধান লোপামুদ্রা দত্ত চৌধুরী

দলীয় সূত্রে খবর, পুরসভার কিছু কাজে ঠিকাদারদের বরাত পাইয়ে দেওয়াকে কেন্দ্র করেই পুরপ্রধান ও উপ প্রধানের মধ্যে বিবাদ চরমে ওঠে । অভিযোগ, বিবাদ চলাকালীন উপ-পুরপ্রধান অফিসে ঢুকতে গেলে, তাঁকে বাধা দেয় পুরপ্রধানের অনুগামীরা। এর ফলে, উভয়পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি বেধে যায়। ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ পর্যন্ত করেন উপপুরপ্রধান নাজিমুদ্দিন। পরে পুরপ্রধান শিবিরও নিমতা থানায় পাল্টা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মেটাতে আসরে নামেন স্থানীয় সাংসদ সৌগত রায়। অভিযোগ সৌগতবাবুকেও থানায় ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়। এতে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছিল বলে মনে করছে দলরে শীর্ষ নেতৃত্ব। গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মেটাতে সৌগত রায়কে দায়িত্ব দেওয়া হয়। তাঁর নেতৃত্বেই একটি কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিই পুরপ্রধান ও উপপুরপ্রধান বদলের সুপারিশ করে। আজ খাদ্যভবনে এক বৈঠকে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠকে সৌগতবাবু ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, উত্তর ২৪ পরগনার জেলা সভাপতি তথা খাদ্য ও খাদ্য সরবরাহ মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য সহ অন্য নেতৃত্ব। বৈঠকে পুরসভার প্রধান ও উপপ্রধানকে সরানো ছাড়াও নতুনদের উদ্দেশ্যে বার্তা দেওয়া হয়েছে। নতুন দায়িত্ব যারা পেলেন, তাঁদেরকেে ১৫ দিন অন্তর বৈঠক করে সহমতের ভিত্তিতে কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দলের পক্ষ থেকে।


শেয়ার করুন
  • 28
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment