কলকাতা প্রচ্ছদ 

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির দৌড়ে এগিয়ে সোমেন মিত্র

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিবেদকঃ সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে প্রায় দুই দশক পর আবার রাজ্য কংগ্রেসের দায়িত্ব ভার পেতে চলেছেন সোমেন মিত্র। প্রদেশ কংগ্রেসের বর্তমান সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরির মেয়াদ এই মাসেই শেষ হওয়ার কথা। সেই মত প্রদেশ কংগ্রেসের নতুন সভাপতি হিসেবে বেশ কয়েক জনের নাম বাজারে শোনা যাচ্ছিল। এর মধ্যে প্রণব মুখার্জির পুত্র অভিজিৎ মুখার্জি,মৌসম বেনজির নূর প্রদেশের দায়িত্ব নিতে রাজি নন। সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য ও দীপা দাসমুন্সীর নামও শোনা যাচ্ছে। এঁরা প্রদেশের সভাপতি হলে কংগ্রেস দল নতুন করে উজ্জীবিত হবে না বলে পর্যবেক্ষক মহল মনে করছেন। প্রদীপবাবু ভদ্রলোক,কিন্ত অসুস্থ।রাজ্য জুড়ে তাঁর জনসংযোগ তেমন নেই। তাঁকে প্রদেশ কংগ্রেস চালাতে হলে অনেকটাই সোমেন মিত্রের উপর নির্ভর করতে হবে। আর দীপা দাসমুন্সী এমনিতেই দিল্লিতেই বেশি থাকেন।আবার এআইসিসি তাঁকে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিয়েছে। সুতরাং দীপা প্রদেশের দায়িত্ব নিলে কংগ্রেসের ভাটার টানকে রোখা যাবে না। তাই একমাত্র সোমেন মিত্র পারে প্রদেশ কংগ্রেসকে অনেকটাই ঐক্যবোধ্য চেহারা দিতে।

রাজনৈতিক মহল মনে করছে,সোমেন মিত্র প্রদেশের দায়িত্ব নিলে রাজ্য কংগ্রেসের মড়া গাঙে ফের জোয়ার দেখা দিতে পারে। বিশেষ করে এ রাজ্যের সংখ্যালঘু মুসলমান সমাজে সোমেন মিত্রের আলাদা একটা গ্রহণযোগ্যতা আছে। আগামী দিনে এ রাজ্যে বিজেপির আগ্রাসন রুখতে হলে কংগ্রেসকে শক্তিশালী হতে হবে।বাম আমলে ১৯৯৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস এ রাজ্যে ৮৬টি আসন পেয়েছিল। সেই সময় প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি ছিলেন সোমেন মিত্র। তারপর থেকে এরাজ্যে আর কংগ্রেস ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। জানা গেছে,কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী নিজে সোমেন মিত্রকে ফোন করেছেন এবং তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নিয়েছেন। সোমেনবাবু কয়েক মাসে আগে এআইসিসি-র অধিবেশনে যোগ দিতে দিল্লি গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। সম্প্রতি সুস্থ হয়ে তিনি কলকাতায় ফিরেছেন। গত ৩১মে বৃহস্পতিবার থেকে তিনি বিধানভবনের ৫তলায় বসছেন। গত বৃহস্পতিবার সুস্থ হওয়ার পর অফিসে যাওয়ার দিন রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে কংগ্রেস কর্মীরা এসেছিলেন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে এই রাজ্যের কংগ্রেসের দায়িত্ব কার হাতে যাবে তা আর কয়েক দিনের মধ্যে ঠিক হয়ে যাবে। তবে সাংগঠনিক দক্ষতায় এ রাজ্যের কংগ্রেস নেতাদের তুলনায় অনেক অনেক এগিয়ে সোমেন মিত্র তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment