প্রচ্ছদ 

রাজ্যে মমতার দূর্গ অটুট,উনিসের লড়াইয়ে ক্রমশই ম্লান হচ্ছে নরেন্দ্র মোদীর ম্যাজিক

শেয়ার করুন
  • 32
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধিঃ সদ্য সমাপ্ত ২০১৮-র দশটি বিধানসভা ও ৪টি লোকসভা আসনের উপনির্বাচনের ফলাফল আজ প্রকাশিত হয়েছে। দেখা যাচ্ছে প্রত্যাশামত বিরোধী জোট এই আসনগুলিতে ভাল ফল করেছে। উত্তরপ্রদেশের কৈরানা লোকসভা আসনটিতে জয়ী হয়েছেন বিরোধীদের সম্মিলিত জোটের পক্ষে রাস্ট্রীয় লোকদলের প্রার্থী তাবাসসুম হাসান। তিনি বিজেপি প্রার্থীকে ৫৫ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়েছেন। উল্লেখ্য উত্তরপ্রদেশের কৈরানা লোকসভার আসনটি আগে বিজেপি-র দখলে ছিল। মহারাস্ট্রের দুটি লোকসভা আসনে উপনির্বাচন হয় পলঘর ও ভান্ডারা-গোন্ডিয়া লোকসভা আসন। পলঘর লোকসভা আসনটিতে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়,শেষ পর্যন্ত ২৯ হাজারের বেশি ভোটে বিজেপি প্রার্থী জয়ী হয়,অন্য দিকে ভান্ডারা-গোন্ডিয়া লোকসভা আসনটি বিরোধী দল এনসিপি বিজেপির কাছ থেকে কেড়ে নিয়েছে। নাগাল্যান্ডের একমাত্র লোকসভা আসনের উপনির্বাচনে বিজেপির জোট সঙ্গী এনডিপিপি জয়ী হয়েছে। লোকসভা আসনের দিক থেকে বিজেপি এককভাবে মাত্র একটি আসন জিতেছে,হারিয়েছে তিনটি।

দশ বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনেও বিজেপি এবং তার জোট সঙ্গী জোর ধাক্কা খেয়েছে। পঞ্জাব,কেরালা এমনকি কর্ণাটকেও কংগ্রেস.সিপিএম তাদের গড় রক্ষা করতে পেরেছে। মেঘালয়ের একটি বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনে কংগ্রেস জয়ী হয়ে শাসক বিজেপি ও তার জোটকে বেশ ধাক্কা দিয়েছে। এদিকে মহারাস্ট্র থেকে একটি বিধানসভা আসন কংগ্রেস দল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় লাভ করে। সবচেয়ে বড় ধাক্কা এসেছে যোগীর রাজ্য উত্তরপ্রদেশ থেকে। এখানে কৈরানা লোকসভা আসনটি হারানোর পর নূরপুর বিধানসভা আসনটিও হেরেছে বিজেপি সমাজবাদী পার্টির কাছে। বিহারে নীতিশ-বিজেপি জোটের প্রার্থীকে হারিয়ে জয়লাভ করেছে আরজেডি। ঝাড়খন্ডে বিজেপির প্রার্থীকে পরাজিত করে জয়লাভ করেছে ঝাড়খন্ড মুক্তি মোর্চা। সব মিলিয়ে ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে যে মহড়া অনুষ্ঠিত হল তাতে দেখা যাচ্ছে সম্মিলিত বিরোধী শক্তির কাছে বিজেপি ও তার জোট সঙ্গীরা পায়ের তলার জমি হারাচ্ছে।

অন্যদিকে আরও এবার পশ্চিমবাংলার মাটিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর ক্যারিসীমার প্রমান রাখলেন। তিনি দেখালেন বাংলায় তাঁর বিকল্প এখনও কেউ নেই। এখানে কংগ্রেস-সিপিএম জোট করে মহেশতলা বিধানসভায় উপনির্বাচনে প্রার্থী দিয়েছিলেন। ভোটের ফল প্রকাশ হওয়ার পর দেখা যাচ্ছে জোটের প্রার্থী সেভাবে মানুষের মনে সাড়া ফেলতে পারেনি। বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রার্থী দুলাল দাস।জয়ের ব্যবধান ৬২ হাজারের বেশি। তবে এই উপনির্বাচনে দ্বিতীয় স্থান দখল করেছে বিজেপি আর বামেরা কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করেও তৃতীয় স্থানে। রাজ্যে মমতার দূর্গ অটুট থাকলেও যেভাবে বিজেপি এ রাজ্যে উঠে আসছে তাতে মমতার কপালের ভাঁজ যে আরও চাওড়া হবে তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।


শেয়ার করুন
  • 32
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment