দেশ 

৩৭০ ধারা বাতিল করা হবে কিনা কয়েক ঘন্টা আগেও টের পাননি বিজেপির মন্ত্রী ও সাংসদরাও

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  নোটবন্দীর মতই বিজেপি মন্ত্রী সাংসদরাও জানতেন না সোমবার রাজ্যসভায় ৩৭০ ধারা বাতিল ঘোষণা করবেন অমিত শাহ । তবে বিজেপি কায়দা করে প্রশিক্ষণের নামে শনি ও রবিবার সব সাংসদদের দিল্লিতে আটকে রেখেছিল । যাতে সোমবার সকাল থেকেই তাদেরকে সংসদে দেখা যায় । সাধারনত সাংসদরা শনি ও রবিবার সাংসদ এলাকায় যান ফলে সোমবার ফিরতে দেরি হয় । সেটা যাতে না হয় তারজন্যই দুদিন ধরে সাংসদদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় ।

তবে কাশ্মীরে যে কিছু একটা হতে চলেছে তা নিয়ে বিজেপি সাংসদদের মনে হয়েছে । তবে এটা বুঝে উঠতে পারেননি তাঁরা যে রাষ্ট্রপতি রবিবার বিদেশ সফর থেকে ফিরেই ৩৭০ ধারা বাতিলের নির্দেশিকা জারি করবেন ।

এ দিন অমিত সংসদে আসার কিছুক্ষণ পর প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ এলেন, তার পর প্রধানমন্ত্রী। বাকি মন্ত্রীরা একেবারে শেষ মুহূর্তে।

অবশ্য সোমবার এক মন্ত্রী বললেন, ‘‘এ বারে অবশ্য কড়াকড়িটা অনেকটাই শিথিল ছিল। কিন্তু এমনটি যে হবে, সেটা সকাল সাড়ে ন’টার আগেও ঘুণাক্ষরে জানতে পারিনি। এগারোটা পর্যন্ত কাউকে বলা নিষেধ ছিল। বিলে ঠিক কী কী আছে, তার খুঁটিনাটি অবশ্য এখনও জানি না।’’ খোদ প্রধানমন্ত্রীর দফতরের প্রতিমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিংহ জম্মুর ‘বড়’ নেতা। গত কালও সাংসদদের কর্মশালায় শামিল হয়েছেন।

কিন্তু এক ধাক্কায় ৩৭০ ধারা রদ করে দেওয়া হবে, সেটি টের পাননি। ভাবছিলেন, বড়জোর ৩৫-এ  অনুচ্ছেদ সরানো হতে পারে। সংসদে সংবিধান সংশোধনী বিল এনে, দুই-তৃতীয়াংশ ভোটের সমর্থন ছাড়াও যে অন্য পথে ৩৭০ অনুচ্ছেদ তোলা যেতে পারে, সে ব্যাপারে কোনও ধারণা ছিল না। অথচ কয়েক দিন ধরে জম্মু-কাশ্মীরে কেন্দ্রীয় বাহিনী বাড়ছিল, অমরনাথযাত্রী ও পর্যটকদের ফেরত পাঠানো হচ্ছিল, অজিত ডোভালরা ঘন ঘন বৈঠক করছিলেন, কাল রাত থেকে উপত্যকার নেতাদের গৃহবন্দিও করে রাখা হয়।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment