দেশ 

টেলিভিশনের লাইভ অনুষ্ঠানের সঞ্চালক মুসলিম তাই চোখে ঢেকে নিলেন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের নেতা ; ভিডিও ভাইরাল হতেই নিন্দায় সরব বুদ্ধিজীবীরা ; এই ধর্মীয় অসহিষ্ণু ভারত কী চেয়েছিলেন মহাত্মা গান্ধী ?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  কয়েকদিন আগেই অন-লাইনে বুক করে খাবার অর্ডার করেছিলেন মধ্যপ্রদেশের অমিত শুক্ল । কিন্ত সেই খাবার যিনি পৌছে দিতে গিয়েছিলেন তিনি একজন মুসলিম । তাই অমিত ওই খাবার নেননি; ফেরত পাঠিয়ে দেন । তাঁর অভিযোগ ভিন ধর্মীর মানুষের ছোঁয়া খাবার তিনি খাবেন না বলে ফিরিয়ে দিয়েছেন । তা নিয়ে দেশজুড়ে বির্তক হয় । অন-লাইন খাবার পরিবেশক সংস্থা জোম্যাটোর কর্তৃপক্ষ স্পষ্ট জানিয়ে দেন খাবারের কোনো ধর্ম হয় না ।

এই বির্তকের রেশ কাটতে না কাটতেই আবার নতুন এক বির্তক উঠে এল । এই বির্তক উস্কে দিলেন হিন্দুত্ববাদী সংগঠন ‘হম হিন্দু’র প্রধান অজয় গৌতম। টেলিভিশনে লাইভ অনুষ্ঠান চলাকালীন মুসলিম সঞ্চালককে দেখে চোখ ঢাকলেন তিনি।

জোম্যাটো কাণ্ড নিয়ে আলোচনা করতে সম্প্রতি একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে ডাক পড়েছিল অজয় গৌতমের। কিন্তু সেখানে খালিদ নামের এক সঞ্চালককে দেখে বেঁকে বসেন তিনি। কথা বলা তো দূর, ওই সঞ্চালককে চোখের সামনে দেখতেও অস্বীকার করেন হিন্দুত্ববাদী ওই নেতা। এর পর অনুষ্ঠান চলাকালীনই দু’হাতে চোখ ঢেকে ফেলেন তিনি।

চ্যানেলের সম্পাদক অনুরাধা প্রসাদ গোটা ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেন। আর সেই ভিডিয়োটি সামনে আসতেই নিন্দায় সরব হন বুদ্ধিজীবীরা। সংবাদমাধ্যমের এই ধরনের নেতাদের বয়কট করা উচিত বলে দাবি তোলেন কেউ কেউ। কেউ কেউ আবার ওই নেতার বিরুদ্ধে অপরাধ মামলা দায়ের করার দাবি জানান। আবার আশঙ্কাও প্রকাশ করেন অনেকে। তাঁদের কথায়, দেশের যা পরিস্থিতি, তাতে এই ধরনের ঘটনাকে মোটেই হালকা ভাবে নেওয়া উচিত নয়।

২০১৫ সালে ‘হম হিন্দু’ সংগঠনের প্রতিষ্ঠা করেন অজয় গৌতম। তাঁদের একটি ওয়েবসাইটও রয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ‘দেশে পূর্ণ স্বরাজ প্রতিষ্ঠা এবং ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র করে তোলাই তাঁদের লক্ষ্য।’


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment