দেশ 

উন্নাও কান্ডে নতুন মোড় : দূর্ঘটনার আগে ট্রাকটির নম্বর প্লেটে কালি লেপা ছিল না জানতে পেরেছেন তদন্তকারীরা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : উন্নাও তদন্তে নতুন মোড় । গত রবিবার উন্নাও গণধর্ষণে নির্যাতিতাসহ তার পরিবারের সদস্যরা এবং আইনজীবীদের সঙ্গে নিয়ে রায়বেরিলীতে যাওয়ার সময় তাঁদের গাড়িতে এক ট্রাক ধাক্কা মারে । সেই ট্রাকের নম্বর প্লেটটি কালো কালি দিয়ে লেপা ছিল । আর তা নিয়ে তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশে চোখ কপালে ওঠার জোগাড় । জানা গেছে , দূর্ঘটনার আগে ওই ট্রাকটির নম্বর প্লেটে কালি লেপা ছিল না ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার উন্নাও থেকে রায়বরেলী যাওয়ার পথে গুরবক্সগঞ্জে নির্যাতিতা ও তাঁর পরিবারের গাড়িতে ধাক্কা মারে উল্টো দিক থেকে ছুটে আসে একটি ট্রাক। ওই দিন ভোর ৫টা ২০ মিনিট নাগাদ ‘দুর্ঘটনা’স্থল থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে, লালগঞ্জ টোল প্লাজা পেরোয় সেটি। তখন নম্বর প্লেটের উপর কোনও কালি ছিল না। পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছিল রেজিস্ট্রেশন নম্বর। তা হলে ওই নম্বর প্লেটে কালি লেপা হল কখন? এই প্রশ্নই এখন ভাবাচ্ছে তদন্তকারীদের।

গাড়ির নম্বর প্লেটে কালি লেপা নিয়ে এর আগে তদন্তকারীদের অন্য যুক্তি দিয়েছিলেন ট্রাক মালিক দেবেন্দ্রকিশোর। তিনি দাবি করেন, কানপুরের বেসরকারি অর্থনৈতিক সংস্থা ‘ওরিক্স লিজিং অ্যান্ড ফাইনান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিডেট’-এর কাছ থেকে ঋণ নিয়ে ট্রাকটি কিনেছিলেন তিনি। কিন্তু সময়ে কিস্তির টাকা মেটাতে পারেননি। সংস্থার এজেন্টদের এড়াতেই নম্বর প্লেটের উপর কালি লেপে দিয়েছিলেন।

যদিও আগেই দেবেন্দ্রকিশোরের দাবি খারিজ করে দেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই অর্থনৈতিক সংস্থার এক এজেন্ট। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, ‘‘আমরা কোনও ভাবে চাপ দিইনি ওঁকে। আমাদের কাছ থেকে মোট তিনটি গাড়ি কিনেছিলেন দেবেন্দ্রকিশোর। যার মধ্যে একটি গাড়ির টাকা মিটিয়েও দেন সম্প্রতি। বাকি দু’টির কিস্তি নির্ধারিত সময়েই দিচ্ছিলেন। নম্বর প্লেট কালি দিয়ে মুছে ফেলার পিছনে নিশ্চয়ই অন্য কারণ ছিল।’’

লালগঞ্জ টোল প্লাজা থেকে বেরনোর পর রাজঘাটের সোহরাবে একটি একটি নির্মাণ সংস্থায় বালি পৌঁছে দিয়েছিল ট্রাকটি। তার পর ফতেপুরের উদ্দেশে রওনা দেয়। তখনই নম্বর প্লেটের উপর কালি লেপে দেওয়া হতে পারে বলে সন্দেহ তদন্তকারীদের। রায়বরেলীর পুলিশ সুপার সুশীলকুমার সিংহ বলেন, ‘‘সিসিটিভি ফুটেজ দেখে মনে হচ্ছে, টোল প্লাজা থেকে বেরনোর পরেই নম্বর প্লেটের উপর কালি লেপে দেওয়া হয়। কী কারণে কালি লেপা হয়েছিল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’’

গত রবিবার রায়বরেলী যাওয়ার পথে উন্নাওয়ের নির্যাতিতা ও তাঁর পরিবারের গাড়িতে ধাক্কা মারে উল্টো দিক থেকে ছুটে আসা ওই ট্রাকটি। তবে এই ঘটনাকে নিছক দুর্ঘটনা বলে মানতে নারাজ নির্যাতিতার পরিবার। তাদের দাবি এর পেছনে রয়েছেন গণধর্ষণ কান্ডের অন্যতম অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গার ।এর পর দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড় । বিষয়টিতে সুপ্রিম কোর্ট সরাসরি হস্তক্ষেপ করে । প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে ট্রাক দূর্ঘটনার তদন্ত শেষ করার নির্দেশ দিয়েছেন ।

তবে নতুন করে ট্রাকের নম্বর প্লেটে কালি লেপার কারণ বের করতে পারলেই দূর্ঘটনার রহস্য উন্মোচিত হবে । সেদিকে লক্ষ্য রেখেই এখন এগিয়ে চলেছে সিবিআই ও তদন্তকারী সংস্থাগুলি ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment