দেশ 

জম্মু-কাশ্মীরে সেনা মোতায়েনের পাশাপাশি বায়ু সেনা , স্থলবাহিনীকে চূড়ান্ত সর্তকবার্তা পাঠাল কেন্দ্র; উদ্বেগ বাড়ছে নাগরিকদের; কাশ্মীরে এটা কী হচ্ছে ? প্রশ্ন ওমরের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : কাশ্মীরে গত সপ্তাহে ১০হাজার সেনা পাঠানো হয়েছিল । আবার ১৫ হাজার সেনা পাঠানো হল । মোট ২৫ হাজার সেনা কাশ্মীরে মোতায়েন করা হয়েছে । আর এত বিশাল সংখ্যক সেনা মোতায়েনের কারণ কী ? তা এখন দেশের রাজনীতির আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে । প্রশ্ন কেন মোদী সরকার এত সেনা বাহিনী কাশ্মীরে পাঠাচ্ছে । এর রহস্য কী ? অনেকে আবার বলতে শুরু করেছে  কাশ্মীরে জন্য আলাদা করে ৩৫ এ ও ৩৭০ ধারা রয়েছে তা হয়তো তুলে নিতে চলেছে মোদী সরকার । আর এই ধারা দুটি তুলে নিলে কাশ্মীর অশান্ত হয়ে উঠতে পারে । তাই আগাম সর্তকবার্তা হিসাবে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে ।

কিন্ত সেনা মোতায়েনের পাশাপাশি বায়ুসেনাকে কেন্দ্রের পাঠানো চূড়ান্ত সতর্কবার্তা সেই উদ্বেগকে এক ধাক্কায় আরও বাড়াল। বৃহস্পতিবারেই কাশ্মীরে বায়ুসেনা এবং স্থলসেনাকে চূড়ান্ত সতর্কবার্তা পাঠায় কেন্দ্র। সেই বার্তা পেয়েই ওই দিন সন্ধ্যা থেকেই উপত্যকায় টহলদারি শুরু করেছে বায়ুসেনার যুদ্ধবিমান।

সপ্তাহখানেক আগেই কাশ্মীরে ১০ হাজার সেনা পাঠিয়েছিল কেন্দ্র। তার পর থেকেই জল্পনা চলতে থাকে তা হলে কি রাজ্যে ৩৫এ এবং ৩৭০ ধারা নিয়ে কোনও বড় পদক্ষেপ করতে চলেছে কেন্দ্র? যদিও গত কাল সেই সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।  তারা জানিয়েছে, অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই সেনা বাড়ানো হচ্ছে উপত্যকায়। পাশাপাশি তারা এ কথাও জানিয়েছে, এটা সেনার একটা রুটিনমাফিক রোটেশন। তবে কোন প্রেক্ষিতে সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে বা সেনা সরানো হচ্ছে তা পাবলিক ডোমেনে আলোচনা করার নিয়ম নেই বলেও জানিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

এ দিকে, সেনা মোতায়েন এবং সেনাকে সতর্কবার্তা পাঠানো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লা। টুইট করে তিনি বলেন, “কাশ্মীরে এটা কী হচ্ছে? কী এমন প্রয়োজন পড়ল যে রাজ্যে সেনা তত্পরতা বাড়ানো হচ্ছে! ” এ ধরনের তত্পরতা নিশ্চয়ই ৩৫এ সম্পর্কিত নয়। এই সতর্কবার্তার অন্য কোনও কারণ আছে বলেই মন্তব্য ওমরের।

আবার অন্য একটি সূত্র বলছে, সামনেই স্বাধীনতা দিবস। ওই দিন জঙ্গিরা হামলা চালাতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে। সে ধরনের কোনও ঘটনা যাতে না ঘটে তা নিশ্চিত করতেই এমন ব্যবস্থা করা হচ্ছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment