কলকাতা 

খিদিরপুরে একই পরিবারের তিন জনের মৃত্যু নিয়ে রহস্য , তদন্তে পুলিশ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : খিদিরপুরের কার্ল-মার্কস সরণি থেকে উদ্ধার হল একই পরিবারের দুই জনের মৃতদেহ । এখানে দুই ভাই ও এক বোন বাস করতেন । উদ্ধারের সময় বোনের দেহে প্রাণ ছিল । তাকে এসএসকেএমে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয় । এলাকাটি দক্ষিণ বন্দর থানা এলাকার মধ্যে পড়ে । কীভাবে মৃত্যু তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত তিন ভাইবোনকে শনাক্ত করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। মৃতদের নাম ত্রিলোকীপ্রসাদ গুপ্ত (৫৯), ভোলাপ্রসাদ গুপ্ত (৫৬) এবং শান্তি গুপ্ত (৫৩)।  পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার ওই বাড়ি থেকে পচা গন্ধ বেরোচ্ছিল। এর পর শুক্রবার সকালে প্রতিবেশীরা পুলিশকে খবর দেন। এ দিন পুলিশ গিয়ে বেশ কয়েক বার ডাকাডাকি করেও গুপ্ত পরিবারের কারও কোনও সাড়া পাননি। এর পর দরজা ভাঙে পুলিশ। ঘরে ঢুকে দেখা যায়, দুই ভাইয়ের দেহে পচন ধরে গিয়েছিল। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বুধবারের পর থেকে ওই তিন ভাইবোনকে কেউ দেখতে পাননি। সেখান থেকেই পুলিশের সন্দেহ, বুধবার রাতে ওই দুই ভাইয়ের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, মৃতদের দেহে কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই। বিষাক্ত কোনও খাবার থেকে মৃত্যু হয়েছে, এমন কোনও ইঙ্গিতও মেলেনি। ঘটনাস্থলে কলকাতা গোয়েন্দা পুলিশের হোমিসাইড শাখার আধিকারিকরা পৌঁছেছেন। তিনটি দেহই ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, ভোলা গুপ্ত দুধের ব্যাবসা করতেন। তাঁর দাদা ত্রিলোকী প্রসাদ রাজ্য সরকারের পূর্ত দফতরের কর্মী। দু’মাস পরেই তাঁর অবসর নেওয়ার কথা। বোন শান্তি দীর্ঘদিন ধরেই শয্যাশায়ী। পুলিশ সূত্রে খবর, ওই বাড়িটি এই তিন ভাই বোনের। এঁরা কেউই বিয়ে করেননি। এক সঙ্গেই থাকতেন।  প্রায় ২০ বছর আগে বাড়িটি স্থানীয় এক প্রোমোটারকে বিক্রি করেন। বহুতলের নীচের তলায় ফ্ল্যাট পান তিন ভাই বোন।

ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরাও শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু বলেই প্রাথমিক ভাবে মনে করছেন। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই তিনজনই যে ঘরে ছিলেন সেই ঘরের সমস্ত জানলা দরজা বন্ধ ছিল। ঘরে অতিরিক্ত কার্বন ডাই অক্সাইড জমে শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু বলে প্রাথমিক ভাবে তদন্তকারীদের ধারণা।

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment