দেশ 

‘ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড’-এ প্রধানমন্ত্রী কবে , কখন ও কোথায় শুটিং করেছে , ডিসকভারি চ্যানেলের কাছে জানতে চেয়ে চিঠি পাঠাল কংগ্রেস

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামা কান্ডের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শুটিং-এ ব্যস্ত ছিলেন বলে কংগ্রেস দল সেই সময় অভিযোগ করেছিল । সেই ঘটনা সামনে এসে গেল । ডিসকভার চ্যানেলের জনপ্রিয় তথ্যচিত্র ‘ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড’-এর প্রোমোটি সোমবারই প্রকাশ করেন চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। পৌনে এক মিনিটের প্রোমোটিতে দেখা গিয়েছে, হাতে ফ্লাস্ক নিয়ে ব্রিটিশ অভিযাত্রী গ্রিলসের সঙ্গে রাফ্টিংয়ের জন্য তৈরি হচ্ছেন ৬৮ বছরের মোদী। গ্রিলস তাঁকে বলছেন, ‘‘আপনি ভারতের সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নাগরিক। আমার কাজ আপনাকে রক্ষা করা।’’

প্রোমোটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পরেই শুরু হয়ে যায় বিতর্ক। বিরোধীরা অভিযোগ করেন, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরের পুলওয়ামার জঙ্গিহানায় ৪০ জন আধাসেনা নিহত হওয়ার দিনেই ওই তথ্যচিত্রের শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন মোদী।

সেই সময় কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা অভিযোগ করেন, পুলওয়ামার ঘটনার সময় শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সাত দিন পর (২১ ফেব্রুয়ারি) সাংবাদিক সম্মেলনেও একই অভিযোগ করা হয় কংগ্রেসের তরফে।

প্রায় একই সুরে সোমবার কংগ্রেস মুখপাত্র মণীশ তিওয়ারি বলেন, ‘‘গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিকেল সওয়া পাঁচটায় একটি জনসভা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। তাতে তিনি পুলওয়ামার ঘটনার উল্লেখ করেননি।  পাকিস্তানকে দেননি কোনও হুঁশিয়ারিও।’’

তিওয়ারির দাবি, ‘‘পুলওয়ামার ঘটনার দু’ঘণ্টা পরেও কিছুই জানতেন না প্রধানমন্ত্রী। ওঁরা যদি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সেটা জানতেন, তা হলে দু’ঘণ্টা পরে কেন জনসভায় তার কোনও উল্লেখ করলেন না তিনি? এখন মনে হচ্ছে, ওই সময় উনি ছিলেন শুটিংয়েই। এখন ডিসকভারি চ্যানেল কর্তৃপক্ষই জানান, সে দিন কতটা সময় ধরে ক’টা থেকে ক’টা পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী মোদীর শুটিং চলেছিল উত্তরাখণ্ডের করবেট জাতীয় অভয়ারণ্যে।’’

বিরোধীদের তরফে ওই সময় এমন অভিযোগও করা হয়, গত পাঁচ বছরে উন্নয়নমূলক কাজের যুক্তি দিয়ে প্রায় ১ কোটি ১০ লক্ষ গাছ কাটার অনুমোদন দিয়েছে মোদীর সরকার। মোদীর গর্বের মুম্বই-আমদাবাদ বুলেট ট্রেনের লাইন বসাতেও কাটা পড়তে চলেছে ৫৪ হাজার ম্যানগ্রোভ। অথচ, ওই তথ্যচিত্রের একটি এপিসোডের জন্য শুটিংয়ে উত্তরাখণ্ডের করবেট জাতীয় অভয়ারণ্যের খরস্রোতা নদীর বুকে ভেলায় ভেসে চলেছেন নরেন্দ্র মোদী। গভীর জঙ্গলের আলো-ছায়া পথে হাঁটতে হাঁটতে প্রধানমন্ত্রী বন্যপ্রাণ সংরক্ষণের গুরুত্ব নিয়ে গম্ভীর আলোচনা করছেন সঞ্চালক বেয়ার গ্রিলসের সঙ্গে।

ডিসকভারি চ্যানেলের তরফে জানানো হয়েছে, করবেট অভয়ারণ্যে শুটিং হওয়া এই বিশেষ পর্বটিতে পরিবেশ রক্ষা নিয়ে মানুষের সচেতন হওয়ার গুরুত্বের কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

আগামী ১২ অগস্ট রাত ৯টায় সম্প্রচারিত হবে এই পর্বটি। বেয়ার গ্রিলস নিজের টুইটার হ্যান্ডলে লিখেছেন, ‘‘১৮০টি দেশের মানুষ মোদীর এই অজানা দিকটি জানতে পারবেন। বন্যপ্রাণ সংরক্ষণের উপযোগিতা ও জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আলোকপাত করবেন মোদী।’’

ওই এপিসোডে মোদী বলেছেন, ‘‘বছরের পর বছর আমি প্রকৃতির কোলে বাস করেছি। পাহাড়-জঙ্গলের সংস্পর্শে এসেছি। সেই সব দিনগুলোর গভীর প্রভাব রয়েছে আমার জীবনে। ফলে রাজনীতির বাইরে এমন একটা বিষয়ে অংশ নেওয়ার সুযোগ যখন এল, ছাড়িনি।’’

আর এই প্রোমোটি ঘিরে আবার নতুন করে পুরানো প্রসঙ্গ তুলে আনতে চাইছে কংগ্রেস । কংগ্রেস দলের পক্ষ থেকে ডিসকভারি চ্যানেলকে চিঠি দিয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী কবে এবং কোন সময় এই তথ্যচিত্রে শুটিং করেছেন ।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment