দেশ 

বিরোধীদের আপত্তি উড়িয়ে যে হারে একের পর এক বিল পাশ করিয়ে নেওয়া হচ্ছে, তাতে সংসদ ভবনকে প্রহসনে পরিণত করেছে মোদী সরকার কটাক্ষ ডেরেকের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : বিগত কয়েক বছর আগেও সংসদে যেকোনো বিল নিয়ে আলোচনা হত । আর আলোচনাটা যথেষ্ট সময় নিয়ে হত । তাই বিরোধী ও শাসক দল উভয়ের বিলটির পক্ষে ও বিপক্ষে বলতে পারত । কিন্ত মোদী সরকার দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসেই  সংসদের প্রথম অধিবেশনেই বিল পাশ করানোয় রেকর্ড গড়ে ফেলেছে ।  সংসদ থেকে পাওয়া তথ্যে জানা যাচ্ছে এখনও পর্যন্ত লোকসভায় ৩০টি বিল পেশ করেছে তারা, যার মধ্যে ২০টি পাশ হয়ে গিয়েছে। লোকসভা এবং রাজ্যসভা, দুই কক্ষে পাশ হয়ে গিয়েছে ১৪টি বিল। গত ১৫ বছরে যা এই প্রথম।

পিআরএস লেজিসলেটিভ  সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, ২০০৪ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত প্রথম অধিবেশনে বিল পাশ করানোর প্রস্তাবই ওঠেনি কখনও। ইউপিএ-১ আমলে ২০০৪ সালের ৫ জুলাই থেকে ২৬ অগস্ট পর্যন্ত বাজেট অধিবেশনে মাত্র ছ’টি বিল পাশ হয়েছিল। ইউপিএ-২ আমলে ২ জুলাই থেকে ৭ অগস্ট পর্যন্ত বাজেট অধিবেশনে পাশ হয়েছিল আটটি বিল। ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর, ৭ জুলাই থেকে ১৪ অগস্ট পর্যন্ত বাজেট অধিবেশনে পাশ হয়েছিল ১২টি বিল। আর এবার এই সময় ৩০টি বিলের মধ্যে লোকসভায় ২০টি বিল পাশ হয়ে গেছে । লোকসভা ও রাজ্যসভা মিলিয়ে ১৪টি বিল ইতিমধ্যেই পাশ হয়ে গেছে । এর মধ্যে আগামী ৭ আগষ্ট পর্যন্ত সংসদের অধিবেশন চলবে । এর ফলে আরও কয়েকটি বিল পাশ করাতে চলেছে মোদী সরকার ।

আর এনিয়েই কটাক্ষ তৃণমূলের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক । তিনি টুইটে কটাক্ষ করে লিখেছেন , ‘সংসদে বিল নিয়ে বিতর্ক হওয়াই রীতি। এ বারে সেই সুযোগ কতটা মিলেছে, এই তালিকাতেই তা স্পষ্ট। আমরা বিল পাশ করছি না বাড়ি বাড়ি পিৎজা ডেলিভার করছি?’

সংসদে বিল পাশ নিয়ে কয়েক বছরের নজীর তুলে ধরে বুধবার সকালে নিজের টুইটার হ্যান্ডলে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেন ডেরেক। তাতে দেখা যায়, ২০০৪-২০০৯ পর্যন্ত, ইউপিএ-১ আমলে সংসদে যত বিল পাশ হয়েছিল, তার ৬০ শতাংশ নিয়েই বিতর্ক হয়েছিল। ২০০৯-২০১৪, ইউপিএ-২ আমলে মোট পাশ হওয়া বিলের ৭১ শতাংশ নিয়ে বিতর্কের সুযোগ পায় রাজনৈতিক দলগুলি। কিন্তু ২০১৪-২০১৯, মোদী সরকারের প্রথম দফায় মাত্র ২৬ শতাংশ বিল নিয়ে বিতর্কের অবকাশ ছিল। এ বছর দ্বিতীয় বারের জন্য নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর এখনও পর্যন্ত ১৮টি বিল পাশ হয়েছে। তবে তার মধ্যে মাত্র একটি বিল নিয়ে বিতর্কের সুযোগ পেয়েছেন বিরোধীরা।

দীর্ঘ দিন আটকে থাকার পর মঙ্গলবার সংসদে বিতর্কিত তিন তালাক বিল রাজ্যসভাতেও পাশ করিয়ে নিয়েছে মোদী সরকার। এর আগে, চলতি বাদল অধিবেশনেই সংসদের উভয় কক্ষে আরটিআই সংশোধনী বিল এবং  এনআইএ সংশোধনী বিল-সহ একাধিক বিল পাশ করিয়ে নিয়েছে তারা। সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে লোকসভায় পাশ করিয়ে নিয়েছে ইউএপিএ এবং মোটর ভেহিক্‌ল সংশোধনী বিলের মতো আরও বেশ কিছু বিল। তা নিয়ে মঙ্গলবারও কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন ডেরেক ও’ব্রায়েন। তিনি বলেন, বিরোধীদের আপত্তি উড়িয়ে যে হারে একের পর এক বিল পাশ করিয়ে নেওয়া হচ্ছে, তাতে সংসদ ভবনকে প্রহসনে পরিণত করে ছেড়েছে মোদী সরকার। বিরোধী কণ্ঠস্বর রোধ করতেই সরকার এমন পদক্ষেপ করছে বলেও দাবি করেন তিনি।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment