কলকাতা 

ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিদের পর কলকাতা পুরনিগমের মেয়র থেকে বিরোধী দলনেতা ও কাউন্সিলারদের ভাতা দ্বিগুণ করা হল

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : একদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলছেন রাজ্যের আর্থিক অবস্থা ভালো নেই অন্যদিকে একের পর জনপ্রতিনিধিদের ভাতা বাড়িয়ে চলেছেন । রাজকোষে যদি অর্থ নেই তাহলে ভাতা বাড়ছে কীভাবে ? প্রশ্ন উঠছে সব মহলেই । কিন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি-র হাত থেকে দলকে রক্ষা করার জন্য জনপ্রতিনিধিদের ভাতা বাড়াচ্ছেন বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে।

পঞ্চায়েতের তিনটি স্তরে ভাতা বাড়ানোর পর এবার মেয়র, চেয়ারপার্সন, ডেপুটি মেয়র, বিরোধী দলনেতা ও কাউন্সিলরদের একলাফে দ্বিগুন ভাতা বাড়ল। মঙ্গলবার পুরসভার অধিবেশনে এই ঘোষণা করেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। চলতি বছরের পয়লা অগাস্ট থেকে এই নতুন ভাতা কার্যকর হবে।

সম্প্রতি রাজ্যের মন্ত্রী ও বিধায়কদের ভাতা বৃদ্ধির ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে ভাতা বাড়ে জেলা পরিষদের সভাধিপতি, জেলা পরিষদ সদস্য, পঞ্চায়েত সমিতির প্রধানসহ গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যদেরও। আর এবার ভাতা বাড়ল পৌরনিগমের মেয়র, ডেপুটি মেয়র , চেয়ারপার্সন , মেয়র পারিষদ , বিরোধী দলনেতো ও কাউন্সিলরদের। পুর দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, মেয়রের বেতন ছিল ৫,৫০০ টাকা। তা বেড়ে দাঁড়াল ১১,৫০০ টাকা।

চেয়ারপার্সনের বেতন ৫,২৫০ টাকা থেকে বেড়ে হল ১১,২৫০ টাকা। বিরোধী দলনেতার বেতন ৪,৭০০ টাকা থেকে বেড়ে দাঁড়াল ১০,৭০০ টাকা এবং কাউন্সিলরদের বেতন ছিল ৪,৪০০ থেকে বেড়ে হল ১০ হাজার টাকা। রাজনৈতিক মহলের মনে করছে, রাজ্যজুড়ে যেভাবে পুরসভাগুলি ভেঙে দেওয়ার প্রবণতা দেখা দিয়েছে, তা রুখতে এবং কাটমানি নেওয়া বন্ধ করতে বেতন বৃদ্ধি করা হচ্ছে কাউন্সিলরদের।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment