দেশ 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার দেশে সাংবিধানিক মূল্যবোধ ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বুদ্ধিজীবীদের খোলা চিঠির প্রেক্ষিতে বিবৃতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : জয় শ্রীরাম ধ্বনি তুলে দলিত ও মুসলিমদের টার্গেট করে যে গণপিটুনি দেশজুড়ে হচ্ছে তা অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য দেশের প্রথম সারির ৪৯ জন বুদ্ধিজীবী চিঠি লিখেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে । সেই চিঠির খবর সংবাদপত্রে প্রকাশিত হওয়ার পর অস্বস্তিতে পড়ে যায় কেন্দ্র সরকার।

তাই চিঠি পাওয়ার পরেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার দেশে সাংবিধানিক মূল্যবোধ ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় প্রতিশ্রুতি বদ্ধ।

এদিন কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্র দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রী জিকে রেড্ডি রাজ্যসভায় বলেন, ২০১৪-র পর থেকে দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে। প্রসঙ্গত ২০১৪-তেই ক্ষমতায় আসেন নরেন্দ্র মোদী  উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশে কারফিউ-এর মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। মন্ত্রী জানান যেখানে ২০১৩ সালে দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার সংখ্যা ছিল ৮২৩ টি, সেখানে ২০১৮তে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৭০৮-এ।

কংগ্রেসের তরফে গোলাম নবি আজাদ দেশে গণ পিটুনির ঘটনার কথা উল্লেখ করেন। তখন মন্ত্রী বলেন, দেশে এই ধরনের ঘটনাই ঘটেনি। তিনি আরও দাবি করেন গণপিটুনির ঘটনা ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গ কিংবা কেরলের মতো রাজ্যে। কিন্তু ভারতীয় জনতা পার্টি শাসিত রাজ্যগুলিতে তা ঘটেনি।

চিঠিতে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর তথ্য উল্লেখ করে বলা হয়েছে, ১ জানুয়ারি ২০০৯ থেকে ২৯ অক্টোবর, ২০১৮ পর্যন্ত ২৫৪টি ধর্মীয় পরিচয় ভিত্তিক অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। ২০১৬ সালে শুধু দলিতদের ওপরেই হামলার ৮৪০ টি ঘটনা ঘটেছে। এইসব ঘটনায় কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে প্রশ্ন তোলা হয়েছে চিঠিতে।

 

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment