কলকাতা 

রাজীব কুমারকে বারবার তদন্তের নামে তলব করে হেনস্থা করা হচ্ছে ; গ্রেফতারের চেষ্টা করছে সিবিআই কলকাতা হাইকোর্টে অভিযোগ রাজীবের আইনজীবীর

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সারদা মামলায় গ্রেফতারি এড়াতে কলকাতা হাইকোর্টে যে আবেদন  প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার করেছিলেন  বুধবার থেকে এই মামলার শুনানি শুরু হয়েছে বিচারপতি মধুমতি মিত্রের এজলাসে। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী সারদা মামলায় আগামী ২২ জুলাই পর্যন্ত রাজকুমারের বিরুদ্ধে কোনও কড়া পদক্ষেপ করতে পারবে না সিবিআই।

বুধবার মামলার শুনানিতে আইনজীবী মিলন মুখোপাধ্যায় দাবি করেন, ২০১৪ সালের নভেম্বর মাসে সিবিআইকে সমস্ত নথি হস্তান্তর করেছিল সারদা নিয়ে রাজ্যের গঠিত তদন্ত কমিটি সিট। তারপর থেকে আজ পর্যন্ত সারদায় সিবিআই চার্জশিট সহ ৬ টি সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট আদালতে পেশ করেছে সিবিআই। এতে কোথাও রাজীব কুমারের নাম নেই। অথচ পাঁচ বছর পর ২০১৯ এর জানুয়ারি থেকে হঠাৎ সিবিআই রাজকুমারের পেছনে পড়েছে সিবিআই। তাঁকে জেরা করার পাশাপাশি গ্রেফতারের চেষ্টাও করছে।

তাঁর আরও দাবি, এই মামলায় রাজীব কুমার ছাড়াও আরও অনেক অফিসার তদন্তে যুক্ত থাকলেও তাঁদের কাউকে জেরা করার জন্য ডাকা হয়নি। সিটে রাজীবের মাথার ওপরে আরও দুজন অফিসার ছিলেন। তাঁদের ডাকা হয়নি। অথচ রাজীব কুমারকে বারবার তদন্তের নামে তলব করে হেনস্থা করা হচ্ছে।

পাশাপাশি, সুপ্রিম কোর্টের বেশ কিছু বিচার আদালতে পেশ করেন আইনজীবী মিলন। জানান আইন মোতাবেক যে কোনও সাক্ষীও আদালতের সুরক্ষা পেতে পারে। তাহলে রাজীব কুমার কেন পাবেন না। তিনি তো তদন্তে সহযোগিতা করছেন। তাঁকে জেলে পুরে আলাদা করে জেরার কি প্রয়োজন? শুধু শুধুই তাঁকে কালিমালিপ্ত করা হচ্ছে বলে রাজীবের আইনজীবী দাবি করেছেন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment