দেশ 

গোমাংস বিক্রেতা সন্দেহে মধ্যপ্রদেশে যুবককে পিটিয়ে খুন

শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব নিউজডেস্কঃ বিজেপি সরকারেরর নগ্নতা ফের প্রকাশ্যে এল। গোমাংস বিক্রেতা সন্দেহে এক মধ্যবয়সী যুবককে পিটিয়ে খুন করা হল বিজেপি শাসিত রাজ্য মধ্যপ্রদেশে। মৃতের নাম রিয়াজ খান (৪৫)। এছাড়া বেধড়ক মারধর করা হয়েছে শাকিল খান নামে তাঁর এক সঙ্গীকেও। তাঁদের অন্য সঙ্গীরা কোনওক্রমে পালিয়ে প্রাণে বেঁচেছেন। ন্যাক্কারজনক এই ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের সাতনা জেলার আগমার গ্রামে। বর্তমানে শাকিল জবলপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে কোমায় রয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, রাতের বেলায় কাইমোর থেকে গ্রামে ফেরার সময় দুই ব্যক্তি শাকিল, রিয়াজ সহ কয়েকজনকে গবাদি পশু নিয়ে যেতে দেখে। তাদেরকে দেখে মাংস বিক্রেতা বলে সন্দেহ হয়। এর  পর ওই দুই ব্যক্তি সেখানে তার সঙ্গী সাথীদের ডেকে নিয়ে গিয়ে শাকিল ও রিয়াজকে মারধর শুরু করে। ভোর ৩ টে নাগাদ ঘটনাস্থলে পুুুুলিশ পৌঁছে রিয়াজ ও শাকিলকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করে। সেখানেই মৃত্যু হয় রিয়াজের। শাকিলের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে। পুলিশের দাবি রিয়াজ ও শাকিলের কাছ থেকে উদ্ধারর হয়েছে কাটা মহিশ ও কিছু মাংস।

দুজনকে মারধর ও খুনের ঘটনায় ৪ অভিযুুুুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃৃৃতরা প্রত্যেকেই আগমার গ্রামের বাসিন্দা। অন্যদিকে রিয়াজ ও শাকিলের বিরুদ্ধে গোহত্যার মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। যদিও দুজনেরই পরিবার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। মধ্যপ্রদেশের আইন অনুযায়ী, গোহত্যার সাজা ৭ বছরের জেল ও ৫০০০ টাকা জরিমানা।

মধ্যপ্রদেশের এই ঘটনায় দেশজুড়ে নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। কোনও প্রমাণ ছাড়াই শুধুমাত্র সন্দেহের বশে যেভাবে মানুষ খুন করা হচ্ছে, কিংবা আইনকে যেভাবে হাতে তুলে নেওয়া হচ্ছে, তাতে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

 

 


শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment