পঞ্চায়েত সংবাদ 

পঞ্চায়েত নির্বাচনের গণনায় কারচুপির অভিযোগে হাইকোর্টে যাচ্ছে বিজেপি

শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সদ্য সমাপ্ত পঞ্চায়েত নির্বাচনে দারুণ ফল করেছে পদ্ম শিবির। ৫৭৪০ টি গ্রাম পঞ্চায়েত আসন পেয়ে রাজ্যে দ্বিতীয় স্থান দখল করে নিয়েছে তারা। গ্রাম পঞ্চায়েতে এই সাফল্যের পরেও কিছুটা নিরাশ  রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব।  কারণ, জেলা পরিষদে আহামরি কিছুই করতে পারেনি তারা। মাত্র ২৩ টি জেলা পরিষদ আসন পেয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে বিজেপিকে। জেলা পরিষদে দলের এই করুন অবস্থা মানতে নারাজ রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। তাঁদের প্রশ্ন গ্রাম পঞ্চায়েতে যেখানে এত ভাল ফল হয়েছে, সে জায়গায় দাঁড়িয়ে জেলা পরিষদ আসনে এই হাল কেন? এই বিপর্যয়ের কারণ হিসেবে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বের একাংশ অবশ্য গণনায় কারচুপির দিকে আঙুল তুলেছেন। তাই জেলা পরিষদের গণনা নিয়ে হাইকোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য বিজেপি। একথা

    জানিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু। তাঁর দাবি, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম সহ বেশ কয়েকটি জেলায় জেলাপরিষদ আসনে জেতার সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু কেন সে ক্ষেত্রে ভালো ফল হয়নি, সেই সংক্রান্ত রিপোর্ট দলের জেলা সভাপতিদের কাছ থেকে চাওয়া হয়েছে। রিপোর্ট হাতে এলেই তারা হাইকোর্টে যাওয়া হবে।
     বিজেপির অভিযোগ, গ্রাম পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতিতে ভালো ফল করলেও জেলা পরিষদের অনেক আসনেই তাদের জোর করে হারানো হয়েছে। গণনা শুরুর আগেই ব্যালট বাক্সের সিল খোলা হয়েছে বলে অভিযোগ বিজেপির। এছাড়া  বিজেপির কাউন্টিং এজেন্টরা গণনাকেন্দ্রে ঢুকতে গেলে তাদের মারধর করা হয় বলে অভিযোগ তোলে বিজেপি নেতৃত্ব। তাঁদের দাবি, বিজেপি এজেন্টরা গণনাকেন্দ্রে ঢুকতে না পারার কারণে, জেলা পরিষদের একাধিক আসনে বিজেপি  প্রার্থীরা জয়লাভ করার পর তৃণমূলের কাউন্টিং এজেন্টরা রিকাউন্টিং করে তাদের হারিয়ে দেয়। সেইসব আসনগুলিতে পুনর্নির্বাচনের দাবি নিয়ে হাইকোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য বিজেপি।

সায়ন্তন বসুর দাবি ঠিকঠাক গণনা হলে অন্ততপক্ষে এর থেকে পাঁচগুণ বেশি জেলা পরিষদ আসনে জিততে পারত বিজেপি।


শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment