দেশ 

শিশু কন্যা নির্যাতনে প্রথম রাজ্য যোগীর উত্তরপ্রদেশ ; পঞ্চমস্থানে পশ্চিমবাংলা , সারা দেশে ৬ মাসে চব্বিশ হাজারের বেশি কন্যা শিশু নির্যাতিত ; উদ্বেগ সুপ্রিম কোর্টের স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যতই নারীর সুশাসন এবং নারী অধিকারে কথা ফলাও করে বলুক না কেন তা আসলে শুধু কথার কথা । এদেশে নারীর নিরাপত্তা তো দূরের কথা শিশু কন্যাদেরও নিরাপত্তা নেই । খোদ বিজেপি শাসিত রাজ্য উত্তরপ্রদেশে বিগত ৬ মাসে ছয় মাসে ৩,৪৫৭টি শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। আর পিছিয়ে আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গও। বিগত ৬ মাসে এখানে ১৫৫১টি শিশু কন্যা ধর্ষনের অভিযোগ জমা পড়েছে । সমগ্র দেশে বিগত ৬ মাসে ২৪ হাজারের বেশি শিশু কন্যা ধর্ষিত হয়েছে বলে খবর । এনিয়ে কোনো সরকারের উদ্বেগ চোখে পড়ছে না । ভারতের মধ্যে শিশু নির্যাতনে প্রথম রাজ্য হল উত্তর প্রদেশ । সেই রাজ্যে ক্ষমতায় আছেন রামভক্ত যোগী আদিত্যনাথ । বিজেপি দল এবং আরএসএস দুটি মনে করে ধর্ষন ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ । তা সত্বে তাদের শাসিত রাজ্যগুলিই শিশু ধর্ষনে প্রথম সারিতে রয়েছে ।

কিন্ত এভাবে আর চলতে পারে না । তা এ বিষয়ে সরাসরি হস্তক্ষেপ করল সুপ্রিম কোর্ট । শুক্রবারই সুপ্রিম কোর্ট একের পর এক এ জাতীয় ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বিগ্ন হয়ে স্বতঃপ্রণোদিত হস্তক্ষেপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ আদালতের রেজিস্ট্রিকে এ নিয়ে মামলা দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছেন। সোমবার সুপ্রিম কোর্ট রাজ্যগুলির জন্য এ ব্যাপারে নির্দেশিকা জারি করতে পারে। প্রধান বিচারপতির নির্দেশেই আদালতের রেজিস্ট্রি গোটা দেশে শিশু ধর্ষণের তথ্য জোগাড় করে হিসেব কষেছে। তাতেই ছয় মাসে ২৪ হাজারের বেশি ধর্ষণের পরিসংখ্যান উঠে এসেছে।

বিরোধীদের অভিযোগ, কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের চরম উদাসীনতার জেরেই সুপ্রিম কোর্টকে এ ভাবে হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে। কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা বলেন, ‘‘২০১৯-এর ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ২৪,২১২টি শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু মাত্র ৯১১টি মামলায় বিচার শেষ হয়েছে। উত্তরপ্রদেশে সবথেকে বেশি ঘটনা ঘটলেও মাত্র ৩ শতাংশ মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে। এই কারণেই কি সরকার ২০১৬ থেকে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস বুরো-র পরিসংখ্যান ধামাচাপা দিয়ে রেখেছে?’’

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment