দেশ 

অসমের বন্যা ভয়াবহ আকার নিয়েছে , ১০ লক্ষ মানুষ গৃহহীন , ১০ জনের মৃত্যু , পরিস্থিতি মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর কথা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : প্রবল বৃষ্টির ফলে অসমের বন্যা পরিস্থিতি আরু খারাপ হয়েছে । ৭২ ঘন্টায় কমপক্ষে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে , ১০ লক্ষ মানুষ গৃহহীন হয়েছে । পরিস্থিতি খুবই খারাপ , মোকাবিলায় নামনো হয়েছে র‌্যাফ । এনডিআর এফের নেতৃত্বে উদ্ধার কাজ চলছে । একটানা প্রবল বর্ষণে অসমের ৩২ টি জেলার মধ্যে ২৫ টি জেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সামনের তিনদিনের আরও বৃষ্টির সতর্কবার্তা জারি হওয়ায় ব্রহ্মপুত্রের জল আরও বাড়তে পারে বলেও সতর্ক করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রায় ২০ হাজার মানুষকে ৬৮ টি ত্রাণ শিবিরে রাখা হয়েছে।

হিমালয় থেকে নেমে এসে বাংলাদেশে ঢোকা ব্রহ্মপুত্র নদ ফুলে ফেঁপে উঠেছে। অসমের তার দু কূল ছাপিয়ে গিয়েছে। প্রায় ১৮০০ গ্রাম জলমগ্ন হয়েছে ব্রহ্মপুত্রের জলে। শুধু ব্রহ্মপুত্রই নয়, আরও নটি নদীর জল বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে। কাজিরাঙা জাতীয় উদ্যানের ৭০ শতাংশের ওপর জায়গা জলের তলায়। রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল।

রাজ্য সরকারে বন্যা সংক্রান্ত খবরে বলা হয়েছে, গত তিন দিনে বিভিন্ন ঘটনায় কমপক্ষে ১০ জনেনর মৃত্যু হয়েছে। ১০ লক্ষের বেশি মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। অসমের জল সম্পদমন্ত্রী কেশব মহান্ত সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি সংকট জনক। বন্যায় ইতিমধ্যেই চাবাগানেরও বেশ ক্ষতি হয়েছে। চা বাগান অধ্যুষিত আপার অসমের ধেমাজি এবং লখিমপুর এবং লোয়ার অসমের বনগাঁইগাঁও এবং বরপেটা প্রবলভাবে ক্ষতিগ্রস্ত।

রাজ্যের তরফে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে শনিবার বৈঠক হয়। এদিন কেন্দ্রীয় সরকারের তরফেও অসম-সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হয়।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment