কলকাতা 

তৃণমূল কংগ্রেস আবার ঘুরে দাঁড়াবে – কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে ; কী টিপস দিলেন প্রশান্ত কিশোর তৃণমূল নেতাদের জানতে চান ? ক্লিক করুন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : লোকসভা ভোটে তৃণমূল কংগ্রেসের আশানুরূপ ফল হয়নি । একইসঙ্গে এই রাজ্যে উত্থান ঘটেছে বিজেপির । গেরুয়া শিবিরে উত্থানে চিন্তিত তৃণমূল নেতৃত্ব । তাই দলের সাংগঠনিক কাঠামোর উপর ভরসা না করে কর্পোরেট লবি কাজে লাগানো চেষ্টা করছেন তৃণমূল নেত্রী । তিনি এই কাজে সাহায্য নিচ্ছেন ভোট পরিচালক প্রশান্ত কিশোরের । তাঁর সঙ্গে বেশ কয়েকবার দলনেত্রী ও যুব নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক হয়েছে ।

গতকাল শুক্রবার কালীঘাটে তৃণমূলের যুব নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের অফিসে প্রশান্ত কিশোর এই প্রথম তৃণমূল দলের জেলা সভাপতিদের সঙ্গে বৈঠক করেন । সেই বৈঠকে উপস্থিত নেতাদের উদ্দেশে প্রশান্তের আশ্বাস, তাড়াহুড়ো করার প্রয়োজন নেই। পরিস্থিতি বদল করে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব। এবং তার জন্য এক বছরের বেশি সময় রয়েছে তৃণমূলের হাতে।

বৈঠকে প্রশান্ত কিশোর পরামর্শ দেন দলের  সাংগঠনিক কাঠামো ভেঙে বুথ স্তর থেকে তথ্য পেতে বিধানসভা কেন্দ্র পিছু ১৫ জন ‘উপযুক্ত’ কর্মী নিয়ে কমিটি গঠন করার করতে বলেছেন । সেই সঙ্গে দলের বিধায়কদের নিজের কেন্দ্রে মাসে কমপক্ষে সাত-আটদিন কাটানোর পরামর্শও দিয়েছেন তিনি। একই পরামর্শ দলের মন্ত্রীদের জন্যেও। প্রশান্তের পরামর্শ, তাঁরা যেন স্থানীয় স্তরে দলীয় বৃত্তের বাইরে থাকা অরাজনৈতিক বিশিষ্ট মানুষের সঙ্গে মেলামেশা করেন। বিভিন্ন কাজে তাঁদের মত নেওয়ার চেষ্টা করার কথা বলা হয়েছে জেলা সভাপতিদের।

প্রাথমিক পরিচয়পর্বেই প্রশান্ত জানান, তিনি তৃণমূলের কোনও নেতা-কর্মীকে নির্দেশ দিতে পারেন না। সেটা দলের এক্তিয়ার। তাঁর কাজ পরামর্শ দেওয়া। এ জন্য তৃণমূলের সঙ্গে তাঁর কোনও আর্থিক লেনদেন নেই বলে প্রশান্তর দাবি। এর আগে মমতাও জানিয়েছেন, বড় বড় সংস্থা যেমন সামাজিক দায়িত্ব ( সিএসআর) পালনের ক্ষেত্রে কাজ করে, প্রশান্তের সংস্থাও তেমনই তৃণমূলের জন্য কাজ করতে পারে।

তৃণমূলের এক জেলা সভাপতি ডিজিটাল আনন্দবাজারকে বলেছেন , ‘‘এই ১৫ জন দলের প্রয়োজন মতো তথ্য সংগ্রহ করে জেলা নেতৃত্বকে জানাবেন। প্রশান্তের যে টিম কাজ করবে, প্রয়োজনে তার সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ থাকবে তাঁদের।’’ শুধু হারের কারণই নয়, কোথায় দলের ফল কেন ভাল, সে সম্পর্কেও তথ্য চাইছেন প্রশান্ত।

বৈঠকে উপস্থিত নেতাদের বিরোধীদলগুলিকে গুরুত্ব দেওয়া কথা বলেছেন । তাদেরকে রাজনীতি করার পরিসর ছেড়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রশান্ত । এ প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের এক নেতা বলেন সভাপতি, ‘‘বিরোধীদের জায়গা দিলে তাঁদের শক্তি বোঝা যাবে। একই সঙ্গে বিরোধী ভোট ভাগের সম্ভাবনাও তৈরি করা যাবে। সম্ভবত সে কারণেই দল এটা চাইছে।’’ এই বৈঠকে জেলা নেতাদের রাজনৈতিক সংঘর্ষ এড়িয়ে থাকতে বলা হয়েছে। তাঁদের বলা হয়েছে, রাজনৈতিক সংঘর্ষের ঘটনা কখনই শাসকদলের পক্ষে যায় না। শাসকদল ও প্রশাসন সম্পর্কে মানুষের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। পাশাপাশি প্রশাসনিক কাজকর্মে হস্তক্ষেপ করতে নিষেধ করা হয়েছে। এদিনের বৈঠকে প্রশান্ত কিশোর ছাড়াও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় , দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও দলের সাধারন সম্পাদক সুব্রত বক্সী উপস্থিত ছিলেন ।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment