কলকাতা 

দলীয় বিধায়কদের উদ্দেশ্যে একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ; কার পরামর্শে এই নির্দেশিকা জানতে হলে ক্লিক করুন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  আজ বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনে দলের সব বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠক করেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । এই বৈঠকে ঠিক আগে তৃণমূল নির্বাচনী কৌশল রচয়িতা প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে আলোচনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং যুব নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । প্রশান্ত কিশোর বিধায়ক জন্য কিছু পরামর্শ দেন বলে জানা গেছে । বিশেষ সূত্রে জানা গেছে আগামী এক বছর দলীয় বিধায়কদের কিছু নির্দেশ পালন করার পরামর্শ দিয়েছেন প্রশান্ত কিশোর । তারই পরিপ্রেক্ষিতে আজকের বিধায়কদের বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছটি নির্দেশিকা জারি করেন । সেগুলি হল :-

এক, দলকে না জানিয়ে কোনো বিধায়ক রাজ্যের বা দেশের বাইরে যেতে পারবেন না। একাধিক কাউন্সিলর এবং বিধায়ক দিল্লিতে উড়ে গিয়ে দল বদল করেছেন। সেটা আটকাতেই দলনেত্রীর এই নির্দেশ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

দুই, সংবাদ মাধ্যমে কেউ আলটপকা মন্তব্য করতে পারবেন না । প্রয়োজন হলে সংবাদমাধ্যমকে এড়িয়ে চলার কড়া নির্দেশিকা দিয়েছেন তিনি।  বিধানসভা ভোটের আগে সংবাদ মাধ্যমে কেউ দলের বিরুদ্ধে কোনও রকম মন্তব্য করে ফেললে পরিস্থিতি আরও সংকটজনক হবে, তাই এই নির্দেশ বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছেন ।

তিন, জনসংযোগ আরও বাড়াতে হবে।  মানুষের কাছে সরকারের উন্নয়ন মূলক কাজের কথা সঠিকভাবে পৌঁছে দিতে পারেননি জনপ্রতিনিধিরা। এই ভুল যাতে দ্বিতীয়বার না হয় সেকারণেই আগাম এই সাবধানতা বলে মনে করা হচ্ছে।

চার, বিরোধীদের সঙ্গে সরাসরি সংঙ্ঘাত এড়িয়ে যেতে বলা হয়েছে। সেকারণেই জনপ্রতিনিধিদের সরাসরি সঙ্ঘাত এড়িয়ে যেতে বলা হয়েছে।

পাঁচ, প্রকাশ্য আলটপকা মন্তব্য করা যাবে না। বিধায়কদের এই বিষযে ভীষণভাবে সচেতন থাকার কড়া নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

ছয়, প্রতি বিধানসভা পিছু চারজনের একটি কমিটি গড়ে দেবেন তৃণমূল নেত্রী। এর জন্য প্রতিটি বিধানসভা এলাকা থেকে চারজন করে কর্মী নিয়োগ করতে হবে । যাঁদের মধ্যে দুজন বুথ দেখবেন, একজন সোস্যাল মিডিয়া দেখবেন এবং একজন বিধায়কদের প্রোগাম দেখবেন। মমতার এই বৈঠকে ছিলেন না রাজারহাট- নিউটাউনের বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত ও প্রাক্তন মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন না ।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment