কলকাতা 

রাজ্যসভায় দোলা সেনকে জেতাতে বিজেপি-র সাহায্য চেয়েছিল তৃণমূল দাবি করলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাজ্যের বাম ও কংগ্রেস নেতারা অভিযোগ করে থাকেন দিদি আর মোদী এক সঙ্গে আছেন । বিজেপির সঙ্গে তৃণমূলের গোপন সমঝোতা রয়েছে বলেও কংগ্রেস নেতারা অভিযোগ করে থাকেন । এবার তার প্রমাণ মিলল রাজ্যসভার সরকারি এক কমিটির সদস্য পদে ভোটাভুটি করতে গিয়ে । যদিও এই পদটি সাধারনত বিরোধী দলের কোন এক নেতাকে দেওয়া হয় । সহমতের ভিত্তিতে সেই সিদ্ধান্ত হয়ে থাকে । কিন্ত এবার এই পদটি নিয়ে ভোটাভুটি হল। সেই ভোটাভুটি দেখা গেল তৃণমূল সাংসদ দোলা সেন ৯০টি ভোট পেয়েছে । আর তা নিয়ে রাজ্য রাজনীতি থেকে জাতীয় রাজনীতি যখন উত্তাল , ঠিক তখনই মুখ খুললেন বিজেপি নেতা মুকুল রায় । উল্লেখ্য , রাজ্যসভায় তৃণমূল কংগ্রেস এককভাবে খুব বেশি হলে ১২টি ভোট পেতে পারে । কারণ দোলা সেনের বিরুদ্ধে প্রার্থী ছিলেন কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য । প্রদীপবাবু মাত্র ৪৬টি ভোট পেয়েছে ।

আর এ নিয়ে বিজেপি তৃণমূলের গোপন সমঝোতার কথা হাটে ভাঙার মত বলে দিলেন মুকুল রায় । তিনি ইএসআইসি-র নির্বাচনে বিজেপির কাছে ভোট চেয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী । আর সেই কারণেই বিজেপি দোলা সেনকে সমর্থন করেছে । বিজেপির ভোটেই দোলা সেন জয়ী হয়েছেন বলে মুকুল রায় দাবি করেন ।

উল্লেখ্য,এমপ্লয়িজ স্টেট ইনসিওরেন্স কর্পোরেশন বা ইএসআইসিতে রাজ্যসভা এবং লোকসভা থেকে একজন করে প্রতিনিধি থাকেন। সাধারণভাবে সহমতে ভিত্তিতে এই প্রতিনিধি নির্বাচন হয়ে থাকে। এমন অনেক কমিটি আছে, যেখানে বিভিন্ন দলের সদস্যরা প্রতিনিধি হিসেবে যান। এবারই কার্যত রীতি ভেঙে ভোটাভুটি। আর যার জেরেই তুলকালাম পরিস্থিতি। সূত্রের খবর অনুযায়ী, রাজ্যসভায় ভোটাভুটিতে তৃণমূল প্রার্থীর পাওয়া কথা ১০ থেকে ১২ টি ভোট সেখানে তৃণমূলের দোলা সেন পেয়েছেন ৯০ টি ভোট। অন্যদিকে কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে ৫০-এর আশপাশে ভোট পাওয়ার কথা থাকলেও প্রদীপ ভট্টাচার্য পেয়েছেন ৪৬ টি ভোট। প্রার্থী দিয়েছিলেন সিপিএমও। তাদের প্রার্থী করিম পেয়েছেন আটটি ভোট। আর বারোটি ভোট বাতিল হয়েছে।
এভাবে দোলা সেনের জয়ে বিজেপির হাত রয়েছে বলে কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য অভিযোগ করেছিলেন ।বুধবারের নির্বাচন প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের দাবি যে কংগ্রেসের প্রদীপ ভট্টাচার্যের অভিযোগকেই সমর্থন করল তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment