দেশ 

লোকসভা ভোটের ফল প্রকাশের পর রাহুল গান্ধীর প্রথম আমেঠি সফরে জনজোয়ার ; বললেন ‘‘অমেঠির সঙ্গে আমার সম্পর্ক ব্যক্তিগত। জয়-পরাজয় রাজনীতির অংশ। কিন্তু কখনও অমেঠি ছেড়ে যাব না আমি। বিপদে আপদে সবসময় আপনাদের পাশে রয়েছি।’’

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে গান্ধী পরিবারের গড় হিসেবে খ্যাত আমেঠিতে পরাজিত হয়েছিলেন রাহুল গান্ধী । ভোটের ফলাফল ঘোষণার প্রায় দেড় মাস পর আজ বুধবার আমেঠি গিয়েছিলেন রাহুল গান্ধী । সেখানে পৌঁছানোর পর মানুষের উষ্ণ অর্ভ্যথনা দেখে অভিভূত রাহুল গান্ধী ।

এদিন রাহুলের সফর উপলক্ষে মাত্র ১২০০ লোককে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল । কিন্ত সেখানে ১৫ হাজারেরও বেশি মানুষ এসে হাজির হন । তাদের প্রত্যেকে সঙ্গে তিনি কথা বলেন । তাদের অভাব অভিযোগের কথা শোনেন । দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক সেরেই আবদার মেনে সাধারণ মানুষের সঙ্গে ছবি তুলতে যান তিনি। পরে সেই ছবি টুইট করে রাহুল লেখেন, ‘অমেঠীতে এসে খুব ভাল লাগছে। মনে হচ্ছে ঘরে ফিরলাম।

দিন অমেঠী পৌঁছে প্রথমেই গৌরীগঞ্জ এবং তিলোই বিধানসভা কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা মাতা প্রসাদ বৈশের সঙ্গে দেখা করেন রাহুল। সম্প্রতি মাতা প্রসাদের এক আত্মীয়বিয়োগ হয়েছে। রাহুল তাঁকে সমবেদনা জানান। পরে কংগ্রেসের স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে পর্যালোচনা মিটিংয়ে যোগ দেন।

সলোন, অমেঠী, গৌরীগঞ্জ, জগদীশপুর এবং তিলোইএই পাঁচ বিধানসভা কেন্দ্রের দলীয় সভাপতিদের সঙ্গেও আলাদা বৈঠক করেন রাহুল। সেখানে দলীয় সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘‘ওয়েনাডের সাংসদ বলে এখানে আসা বন্ধ করে দেব, এমনটা ভেবে বসবেন না যেন। বার বার এখানে আসব আমি।

কংগ্রেসকে পুনরুজ্জীবিত করতে দলীয় কর্মীদের দীর্ঘ লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হতে বলেন রাহুল। তাঁর কথায়, ‘‘অমেঠির সঙ্গে আমার সম্পর্ক ব্যক্তিগত। জয়পরাজয় রাজনীতির অংশ। কিন্তু কখনও অমেঠী ছেড়ে যাব না আমি। বিপদে আপদে সবসময় আপনাদের পাশে রয়েছি।’’

এক ঝলক রাহুলের দেখা পেতে দিন ভিড়ে শামিল হয়েছিলেন এলাকার প্রাক্তন গ্রামপ্রধান গঙ্গা প্রসাদ। তিনি বলেন, ‘‘অমেঠীতে কংগ্রেসকে পুনরুজ্জীবিত করতে হলে শিকড় পর্যন্ত পৌঁছতে হবে দলের নেতাদের। গ্রামে ঘুরে ঘুরে দলের যে কর্মীরা কাজ করছেন, তাঁদের মতামতকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত।’’

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment