কলকাতা 

বেতন বৃদ্ধির দাবিতে অনশনের পথে প্রাথমিক শিক্ষকরা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : পিআরটি স্কেলের দাবিতে এবার অনশনে বসতে চলেছেন রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকদের বড় অংশ । আগামী ১৫ জুলাই থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য অনশনে বসবেন বলে প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে । তাঁদের অভিযোগ, বার বার বেতনবৃদ্ধির  আবেদন করা সত্ত্বে  তৃণমূল সরকার সেই আবেদন পূরণ করেনি। পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক প্রশিক্ষিত শিক্ষক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পিন্টু পাড়ুই সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, “রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ফেব্রুয়ারি মাসে এই বিষয়ে নজর দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, কিন্তু এখনও পর্যন্ত বেতন বৃদ্ধি নিয়ে সরকার কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।”

প্রাথমিক প্রশিক্ষিত শিক্ষক সংগঠনের নেতা পিনটু পাড়ুই বলেন, “আমরা ১০ এপ্রিল সংগঠনের তরফে বিকাশ ভবনে উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে দেখা করে এই বিষয়টি দ্রুত সমাধান করার আর্জি জানাই।” তাঁর আরও বক্তব্য, “শিক্ষকদের যোগ্যতার কথা মাথায় রেখে তাঁদের সমতুল্য মানে বেতন বৃদ্ধি করা উচিত। কারণ অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গে চাকুরিরত প্রাথমিক শিক্ষকেরা অনেক কম বেতন পান। যা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়।”

প্রসঙ্গত, জুন মাসের শেষ সপ্তাহে সর্বভারতীয় স্তরের সঙ্গে সাযুজ্য রেখে নূন্যতম যোগ্যতামান অনুযায়ী ন্যায্য বেতনের দাবিতে ও বেআইনিভাবে বদলির প্রতিবাদে কলকাতায় মহামিছিল করে রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশ। সেই আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিল উস্তি ইউনাইটেড প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠন । সেই সংগঠনের নেত্রী পৃথা বিশ্বাস বলেন, “এনসিটিই মেনে আমরা আমাদের যোগ্যতা বাড়িয়েছি। কিন্তু সেই অনুযায়ী আমাদের বেতন দেওয়া হয় না। আমরা পশ্চিমবঙ্গের বেতন কাঠামোয় পিবি টু, অথচ আমাদের যোগ্যতা পিবি ফোর কাঠামোয় বেতন পাওয়ার উপযুক্ত। আমরা এই বৈষম্য দূর করার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে মিছিল করছি।” উল্লেখ্য, মিছিলকারী শিক্ষকদের ফেরাতে কলকাতা পুলিশের জলকামান ব্যবহার করা হয়, আটক হন কিছু শিক্ষক , বেশ কিছু শিক্ষক আহত হয়েছিলেন।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment